রেঞ্জ ২০০ কিমি, ৪০ কেজি যুদ্ধাস্ত্র বহনে সক্ষম। মানুষ ছাড়াই উড়বে হেলিকপ্টার। আসছে সেনাবাহিনীর হাতে

নিউজ ডেস্কঃ যতদিন যাচ্ছে ততই ভয়ংকর অস্ত্র তৈরি করছে একাধিক দেশ। বিশেষ করে আমেরিকা বা রাশিয়া। তবে পিছিয়ে নেই রাশিয়ার একাধিক দেশ। তবে আনম্যান্ড অর্থাৎ মানুষ ছাড়াই ব্যবহার করা যাবে এমন অস্ত্রের সংখ্যা বাড়ছে দিনের পর দিন। ইতিমধ্যে বিশেষ কিছু ভয়ংকর ড্রোন তৈরি করেছে আমেরিকা, কিছুদিনের মধ্যে ভারতবর্ষ হাতে পাবে। এবার আনম্যান্ড হেলিকপ্টারও তৈরি করার চেষ্টা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

প্রথম ছবিটা ফ্রান্সের এয়ারবাসের তৈরি VSR700 প্রোটোটাইপ

দ্বিতীয় ছবিটা স্কাচিবেল ও রাইথিয়ন এর তৈরি LAND 129 ফেজ ৩ ট্যকটিক্যল আনম্যনড এরিয়াল সিস্টেম প্রজেক্ট, এটা অস্ট্রেলিয়ার জন্য।

হ্যলের তৈরি RAUV -200 সিস্টেম। ইতিমধ্যে ই এর প্রদর্শন করা হয়েছিল। সম্প্রতি এর স্ট্যাটাস জানা যায় নি এখনও।

সিন্থেটিক অ্যপারচার রেডার, ইলেকট্লো অপটিক/ইনফ্রারেড, হাইপার স্পেকট্রাল ইমেজিং ক্যমেরা , লাইট ডিটেকশন ও রেনজিং রেডার যুক্ত এই সিস্টেম গুলোর মূলত কাজ সারভিলেন্স। গ্রাউন্ড সারভিলেন্স এর পাশাপাশি এগুলো সমুদ্রের একাধিক অপারেশনেও সক্ষম।

এই হ্যালিকপ্টার গুলির একাধিক ব্যবহার আছে

১) মনিটরিং স্ট্রাটেজিক গ্রাউন্ড অ্যসেট।

২) টার্গেট ডেসিগনেশন ও ট্রাকিং

৩) আই ই ডি ও ল্যন্ডমাইন ডিটেকশন।

৪) ল্যান্ড সার্ভে ও টেরিয়ান ম্যপিং

৫) ডিসাস্টার রিলিফ

৬) কোস্টাল সারভিলেন্স

৭) অ্যন্টি পাইরেসি অপারেশন

৮) অ্যন্টি সাবমেরিন ওয়ার ফেয়ার।

৯) রেডার ও মিসাইল ডেকয়

১০) বন্দরের সুরক্ষা

হ্যাল এর এই RUAV-2000 এর রেঞ্জ ২০০ কিমি, ৪০ কেজি পেলোড বহনে সক্ষম এই এই হেলিকপ্টারটি টানা ৬ ঘন্টা একটানা অপারেশনে সক্ষম। তবে কবে সার্ভিসে আসবে তা এখনও যান যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *