তেজাসের পরবর্তী ভার্সনের যুদ্ধবিমানের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি। ৭ টনের বেশি যুদ্ধাস্ত্র বহন করবে এবার

নিউজ ডেস্কঃ আগামি ৫ বছরের মধ্যে যেকোনো দেশের সাথে যুদ্ধ করতে ভারত বিপুল সংখ্যায় দেশীয় প্রযুক্তির যুদ্ধবিমান ব্যবহার করতে চলেছে। ইতিমধ্যেই তেজাস মার্ক ১ র মতো যুদ্ধবিমান সার্ভিসে রয়েছে সেনাবাহিনীর যা শত্রুপক্ষের ঘুম উড়িয়েছে। এই দেশীয় যুদ্ধবিমান প্রচুর পরিমাণে আসবে সেনাবাহিনীর হাতে, আসলে সেনাবাহিনী নিজেদের দেশীয় প্রযুক্তির যুদ্ধবিমানের উপর বেশি নির্ভর হতে চলেছে ভবিষ্যতে। পাশাপাশি দেশীয় প্রযুক্তির তৈরি পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান ভারী মাত্রায় আসবে সেনাবাহিনীর হাতে, তবে তেজাস মার্ক ২ কিছুদিনের মধ্যে সামনে আসবে, এবং এই যুদ্ধবিমান ও যে সেনাবাহিনীর অন্যতম ভরসা হতে চলেছে তা ইতিমধ্যে প্রকাশিত।

তেজস মার্ক-২ একটি পুরোদস্তুর মিডিয়াম মাল্টিরোল ফাইটার হিসাবে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে। নিজের ১১টি হার্ডপয়েন্টে ৭টনের বেশি পেলোড বহনে সক্ষম এই যুদ্ধবিমান। আডার চিফের কথা অনুযায়ী সিঙ্গিল ইঞ্জিন যুদ্ধবিমান হিসাবে তেজস মার্ক-২ এর পেলোড ক্ষমতা সব থেকে বেশি হতে চলেছে।

তেজস মার্ক-১ এর পেলোড ক্ষমতা ৩টন বলা হলেও পরে তা বাড়িয়ে ৪.৫টন করা হয়েছে, এবং তা প্রমান ও পাওয়া গেছে। অর্থাৎ এই পরিমাণ ওজন নিয়ে উড়তে দেখা গেছে। তেজস মার্ক-২ একবার সার্ভিসে এলে বালাকোটের মত এয়ারস্ট্রাইক খুব সহজেই করতে পারবে বলে মত সামরিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের। ক্যটস ওয়ারিয়র ড্রোন ও লং রেঞ্জ ক্রুজ মিসাইল সহ মার্ক ২ তে রিট্র্যক্টেবেল রিফুয়েলিং থাকছে। ইতিমধ্যে ৪মাস অগ্রিম কাজ চলছে। ২০২২ এর আগস্ট মাসে আত্ম প্রকাশের জন্য জোড় কদমে কাজ করছে হ্যল এবং আডা!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *