৫০ বছর ধরে সার্ভিসে রয়েছে, এখনও আমেরিকার বিধ্বংসী যুদ্ধবিমান গুলির দফারফা করতে পারে ভারতবর্ষের এই বিশেষ যুদ্ধবিমানটি

নিউজ ডেস্কঃ একটা সময় ছিল যখন ভারতের ৯০ শতাংশ যুদ্ধাস্ত্র আসত রাশিয়া থেকে। বিশেষ করে যুদ্ধবিমান। আজও সেনাবাহিনীর বেশিরভাগ যুদ্ধবিমান রাশিয়ার। মিগ ২১। যুদ্ধবিমানের ইতিহাসে এমন এক যুদ্ধবিমান যা সারা পৃথিবীর ঘুম কেড়ে নিয়েছিল। সারা পৃথিবীর ৪০ এর উপর দেশ এই যুদ্ধবিমান ব্যবহার করেছিল। ভারতবর্ষ ছিল তাদের মধ্যে অন্যতম। তবে একসাথে প্রচুর যুদ্ধবিমান ক্রয় করেছিল সেনাবাহিনী। একবারে প্রায় ৮০০ এর উপর যুদ্ধবিমান ক্রয় করেছিল সেইসময়। আর এই যুদ্ধবিমানের কারনে পাকিস্তান যথেষ্ট সমীহ করে চলত সেনাবাহিনীকে।

মিগ-২১ এর মত কিংবদন্তী যুদ্ধবিমান পৃথিবীর ইতিহাসে খুব কম তৈরি হয়েছে। ৫-৬ দশক ধরে একটি যুদ্ধবিমান উড্ডয়ন করলে ধ্বংস হবেনা? মিগ-২১ নিজের কাজ অনেক আগেই শেষ করে দিয়েছে। তবে আজও এফ-১৬ এর মত যুদ্ধবিমানকে যেভাবে চ্যলেঞ্জ করে তাতে এই যুদ্ধবিমানকে সাধুবাদ দেওয়াই যেতে পারে। এত পুরোনো যুদ্ধবিমান হওয়া সত্ত্বেও এই যুদ্ধবিমানকে এখনও অবসর করানো হয়নি। অতয়েব সেটি যে বিমানবাহিনী এবং সর্বোপরি ডিফেন্স মিনিস্ট্রির ব্যর্থতা  বলে মনে করেন সামরিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

এত কিছুর পরও আজও মিগ-২১ কে নিয়ে আলোচনা করা হয়। বিভিআর ক্ষমতা সম্পন্ন। সেই সময় মিগ-২১ এর রেডার সিগনেচার সব থেকে কম ছিল যুদ্ধবিমানের মধ্যে। ভাবতে পারছেন একটি সিঙ্গিল ইঞ্জিন যুদ্ধবিমান যার ইঞ্জিনের আফটার বার্নারের সক্ষমতা মাত্র ৬৯.৫৮কেএন। আর এই যুদ্ধবিমান ম্যাক-২.১(২২০০কিমি/ ঘণ্টা) গতী তুলতে পারতো। যা বর্তমানে সেনাবাহিনীর সবথেকে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান রাফালের থেকেও অনেক বেশি। তবে বর্তমানে গতী খুব বড় একটা বিষয় না। কিন্তু সেইসময় ছিল। তবে বর্তমানে তাবড় তাবড় যুদ্ধবিমান এই গতি তুলতে হিমসিম খায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *