আসুন জেনে নেই পৃথিবীর যে ১০ দেশে আত্মহত্যা সবচেয়ে বেশি ।

নিউজ ডেস্কঃ আত্মহত্যা বর্তমানদিনে নানান কারনে বিশ্বে বেড়েই চলেছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, এর রিপোর্ট অনুসারে, প্রতি ৪০ সেকেন্ডে বিশ্বের কোথাও না কোথাও একজন ব্যক্তি আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার হারের তালিকায় যেমন দরিদ্র দেশগুলি পরে ঠিক তেমন এই তালিকা থেকে বাদ পরে না উন্নত দেশেগুলোও।আত্মহত্যার হার গোটা বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ এমন দশটি দেশ হল – 

গিয়ানা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে, ক্যারিবীয় দেশ গিয়ানা।এই ছোট দেশটিতে প্রতি ১ লক্ষ নাগরিদের মধ্যে আত্মহত্যার ঘটনা ৪৪.২ শতাংশ।যার কারন হিসাবে জানা যায় যে, প্রচণ্ড দারিদ্র্য, অতিরিক্ত মাত্রায় অ্যালকোহল সেবন। গিয়ানার মানুষ তরল বিষ পান করেই বেশি আত্মহত্যা করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়া

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে, প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৮.৯ শতাংশ।যার কারন হিসাবে জানা যায় যে,  চাকরির চাহিদা পূরণের চাপ এবং পড়ালেখা ও সামাজিক চাপের কারণে দক্ষিণ কোরিয়রা আত্মহত্যা করে থাকে।

শ্রীলঙ্কা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৮.৮ শতাংশ।এর পিছনে কারন হিসাবে জানা যায়, দারিদ্র্য ও বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা।

লিথুয়ানিয়া

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৮.২ শতাংশ। এই দেশটিতেই আত্মহত্যার সংখ্যা ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।এখানে আত্মহত্যার মূল কারণ সামাজিক ও আর্থিক সমস্যা। 

সুরিনাম

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  এরপরে তালিকায় আসে সুরিনাম দেশ। প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৭.৮ শতাংশ।

মোজাম্বিক

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকদের মধ্যে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে ২৭.৪ শতাংশ।  

নেপাল

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  এরপরে নেপাল।সেখানে প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৪.৯ শতাংশ। 

তানজানিয়া

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৪.৯ শতাংশ। 

কাজাখস্থান

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৩.৮ শতাংশ। 

বুরুন্ডিবিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুসারে,  প্রতি ১ লক্ষ নাগরিকে আত্মহত্যার ঘটনা ২৩.১ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.