মাত্র ৩ সেকেন্ডে মিসাইল লঞ্চ করতে সক্ষম। আসতে চলেছে বিধ্বংসী অস্ত্র সেনাবাহিনীর হাতে

নিউজ ডেস্কঃ আত্মনির্ভর ভারত গড়ার ডাক যে বিফলে যাবেনা তা  নিশ্চিত করতে দেশের একাধিক সংগঠন ইতিমধ্যে কাজ করতে শুরু করেছে। পাশাপাশি এর সুফল পাওয়া শুরু হয়েছে এবং খুব তাড়াতাড়ি আরও সুফল পাওয়া যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। ভারতের দেশীয় কোম্পানি গুলির কাজ সত্যি প্রশংসনীয়। সার্ফেস টু এয়ার মিসাইলের সফল পরীক্ষা করা হল সম্প্রতি।

লাইভ ওয়ারহেডের সঙ্গে প্রথমবার ডিআরডিওর তৈরি কুইক রিএ্যকশান সার্ফেস টু এয়ার মিসাইল বা QRSAM পরীক্ষা করা হয়েছে। মিসাইলটি একটি হাইলি ম্যনুয়েভার ড্রোনকে সফল ভাবে হিট করে।

QRSAM একটি অস্ত্র বিভিআর মিসাইলের ওপর নির্ভর করে তৈরি। স্যাম যা টার্গেটকে ট্র্যক করার ৩-৫সেকেন্ডের মধ্যে মিসাইল লঞ্চ(রিঅ্যাক্ট) করতে সক্ষম। মূলত তিনটি রেডার সেন্সর রয়েছে এতে।

১২০কিমি রেঞ্জের সি ব্যন্ডের ব্যটারি সার্ভেইল্যন্স রেডার (GaN Based)।

৮০কিমি রেঞ্জের এক্স ব্যন্ডের ব্যটেরি মাল্টি ফাংশান রেডার (GaN Based)।

১২কিমি রেঞ্জের ইলেকট্রো অপ্টিক্যল টার্গেটিং সিস্টেম!

প্যসিভ হওয়ায় অন্য রেডার জ্যম হয়ে গেলেও এটা এ্যক্টিভ থাকবে আর শত্রু টার্গেট জানতেও পারবে না যে ট্র্যক করা হচ্ছে। মিসাইল রেঞ্জ ৩০কিমি ৩০০মি/সেকেন্ড গতীর টার্গেটের জন্য আর ২০কিমি ৫০০মি/সেকেন্ড গতীর টার্গেটের জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *