এতো পরিমাণ অর্থ লাভ হওয়া সত্ত্বেও কেন্দ্রীয় সরকারের গাফিলতি রয়েছে এই ব্যবসায়?

নিউজ ডেস্কঃ সারা পৃথিবী ঘোরার আগে সারা ভারতবর্ষ ঘোরা উচিৎ। অনেকের মুখেই শোনা যায় একথা। কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন যে এই কথা বলার পেছনে কি কোনও কারন আছে? আসলে স্বর্গ থেকে শুরু করে নরক, ভালো ভাবে ঘুরলে এবং জানলে ভারতবর্ষে সমস্তটাই পাওয়া যাবে। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের গাফিলতিতে সেইসকল প্রচেষ্টা করা হচ্ছেনা। অর্থাৎ পর্যটন ব্যবসার কথা বলা হয়েছে।

বিশ্বের জনসংখ্যা নিরিখে ২০২০সালে এসেও ভারত বিশ্বের পর্যটন রেঙ্কিং এ বিশ্বে ২৬তম। সত্যি ভাবতেও অবাক লাগে। পর্যটন শিল্প এমন একটা শিল্প যেখানে মিনিমাম ইনভেস্টমেন্টে ম্যক্সিমাম প্রফিট অর্থাৎ স্বল্প বিনিয়োগে লাভ বেশি পাওয়া যায়। সব থেকে বড় বিষয় ভারতীয়দের রেভিনিউ যেমন দেশের জিডিপিতে সব থেকে বড় বৈদেশিক অর্থের জোয়ার আনে একই ভাবে বিদেশের নাগরিকরা ভারতে ঘুরতে এলে বৈদেশিক অর্থের ভান্ডার নিয়ে আসে।

২০১৯সালে ভারতে ১কোটি ৮৯লক্ষ বিদেশী নাগরিক ভ্রমন করতে এসেছে। যার ফলে ভারতের ২,১০,৯৮১কোটি টাকার উপার্জন হয়েছে। ভারতের এত বিশাল প্রাকৃতিক সৌন্দর্য শুধু সঠিক ভাবে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করতে ব্যর্থ হওয়ায় আজ ভারতের পর্যটন শিল্প নিজের সম্পূর্ণ সম্ভাবনায় বিকাশ করতে পারছে না। শুধু দেশের জিডিপি নয়। এটা ভারতের সামাজিক অর্থনীতির ওপর দারুন প্রভাব ফেলে। যে অঞ্চলে পর্যটকরা ঘুরতে আসে সেই অঞ্চলের মানুষরা নিজেদের জীবন নির্বাহ করতে অনেক ধরনের জিবিকাকে আপন করতে সক্ষম হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *