MySHORTS – My CinemaHall এর পক্ষ থেকে স্বল্প দৈঘের বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব

My SHORTS নামে স্বল্প দৈঘের বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করছে My CinemaHall – একটি যুগান্তকারি প্রচষ্টা – স্বল্প দৈর্ঘের চলচ্চিত্র জগতেএরকম প্রয়াস এই প্রথম। একই সঙ্গে ছবির প্রদর্শন এবং অর্থ উপার্জনের সুবর্নসুজোগ ছবি নির্মাতাদের কাছে। নির্বাচিত সব গুলি ছবিই দূর্গা পুজার সময়ে My CinemaHall এ দেখানো হবে। প্রতিটি ছবি থেকে উপার্র্জিত অর্থ ছবিনির্মাতাদের সঙ্গে ভাগ করা হবে। একথা বল্লে ভূল হবেনা যে My SHORTS দর্শক এবং ছবি নির্মাতাদের কাছে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচিত করবে আশাকরা যায়।

MySHORTS এর বৈশিষ্ট বিষয়ে আলোকপাত করে MyCinemaHall এর কর্ণধার কল্যাণময় চট্টোপাধ্যায় বলেন “ এই উৎসব তরুণ নির্মাতদের কাছে তাদের সৃষ্টি প্রদর্শনের এক বিরাট সুযোগ এনে দিচ্ছে।  ইতিমধ্যে আমরা চিত্রনির্মাতাদের কাছ থেকে অংশগ্রহনের ব্যাপারে প্রভূত সাড়া পেয়েছি। অন্যান্য  আন্চলিক  ভাষায় স্বল্প দৈর্ঘের ছবি প্রদর্শনের পরিকল্পনাও আমাদের আছে “

MyCinemaHall   এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং এই উৎসবের পরিকল্পনাযাঁর, সেই 

যাত্রিক চক্রবর্তী আরো বলেন “ সোসাল মিডিয়াতে আপনারানানারকম স্বল্প দৈর্ঘের ফিল্ম উৎসব দেখে থাকেন। আমি মনে করি সেগুলোদেখবার যোগ্য নয় এবং নির্বাচন প্রক্রিয়াতেও স্বচ্ছতা নেই। উৎসবেরযোগদানকারিদের কোনো ধারণাই থাকেনা তাঁদের ছবি কোনোদিন প্রদর্শিতহবে কিনা। MySHORTS.  এ নির্বাচন প্রক্রিয়া

স্বচ্ছ এবং বিচারকদেরযোগ্যতা সন্দেহাতীত। ছবি প্রদর্শন থেকে নির্মাতারা অর্থ উপার্জনের সুযোগ ও

পাচ্ছেন। “

বিচরমন্ডলীও এই উৎসবের আরো একটি আকর্ষণ। জুরিদের প্রধান হলেনশ্রীমতি অপর্ণা সেন – প্রখ্যাত 

পরিচালকঅভিনেতা এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসপ্মন্ন সিনেমা ব্যাক্তিত্ব। অন্য বিচারকদের মধ্যে আছেন অর্ঘকমল মিত্র ( পুরস্কার প্রাপ্ত সম্পাদক ), অনিক দত্ত ( খ্যাতিনামা পরিচালক ), 

অভীকমুখোপাধ্যয় ( পুরস্কার প্রাপ্ত সিনেমাটোগ্রাফার )  

সোহাগ সেন ( অভিনেতা ওনাটক ব্যাক্তিত্ব ) বলা প্রয়োজন যে নির্বাচকদের বিবেচিত পুরস্কার ছাড়াওথাকবে একটি দর্শকদের নির্বাচিত পুরস্কার।

বিখ্যাত পরিচালক এবং অন্যতম বিচারক অনিক দত্ত বলেন,“ এই উৎসবচিত্র নির্মাতাদের গুণগ্রাহী দর্শক গোষ্ঠির কাছে নিজেদের ছবি দেখাবার সুযোগকরে দিচ্ছে। আমার স্থির বিশ্বাস জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ফিল্ম উৎসবে ভালছবি বেছে নেবার জন্য এই উৎসবের ছবিগুলির ভান্ডার প্রয়োজনীর বলে গণ্যহবার যোগ্যতা রাখবে। “

MyCinemaHall ডিজিটাল জগতের প্রদর্শন মন্চ। সাধারণ ছবি মুক্তির যেসব জটিলতা থাকে তা সম্পুর্ণ এড়িয়ে চিত্র নির্মাতারা তাঁদের ছবি সহজেইদর্শকদের কাছে পৌছেদিতে পারবেন। দর্শকরাও তাঁদের পছন্দের ছবি যে কোনোসময়ে, যে কোনো জায়গায় দেখতে পারবেন। এটি একটি অ্যাপভিত্তিক OTT মন্চ  যেখানে যে ছবি দেখছেন কেবল তারই জন্য টিকি  ট কাটবেন। দর্শকরাটিকিটে র দাম দিয়ে দেখছেন আর চিত্র নির্মমতার তাঁদের প্রাপ্য অর্থ পেয়েজাচ্ছেন, মধ্য পথে কোনো দালাল বা  তৃতিয় ব্যাক্তিকে কিছু দেবার প্রয়োজনহচ্ছে না। এ ছাড়া MyCinemaHall থেকে পাইরেসি বা চুরি করা সম্ভব নয়।তার অর্থ , চিত্র নির্মতারা এই সব অবান্তর বিষয়ে মাথা না ঘামিয়ে নিজেদেরসৃষ্টির প্রতি সম্পুর্ণ মনোনিবেশ করতে পারবেন।

MyCinemaHall সদ্য আরম্ভ হয়েছে। এর সূচনা কলকাতায়, ২০২০ সালেরএপ্রিল মাসে। মাত্র চার মাসের মধ্যে ১২,০০০ ডাউনলোড হয়েছে। একশোরবেশি নাটক, অল্প দৈর্ঘের এবং পুর্ণ দৈর্ঘের ছবি প্রদর্শিত হয়েছে। এই মন্চেএখন বাংলা ছাড়াও হিন্দি, ইংরাজি, অসমিয়া, ওডিয়া ও কন্নড় ছবি দেখানোহচ্ছে।

এখন পর্যন্ত সিনেমা হল বা মাল্টিপ্লেক্স খোলার অনুমতি পাওয়া যায়নি।অনুমতি পেলেও বন্ধ ঘরে দর্শকরা যাবার সাহস করবেন বলে মনে  হয় না। বাড়ি বসে মনোরঞ্জনের ভবিষ্যত যে ভারচুয়াল সিনেমা হল – তাতে কোনোসন্দেহ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *