২০৩০ সালের মধ্যে আরও বিধ্বংসী করে তুলতে ষষ্ঠ প্রজন্মের যুদ্ধবিমান আনার পথে আমেরিকা

নিউজ ডেস্কঃ পৃথিবীর প্রথম পঞ্চম প্রজন্মের বিমান তৈরি করেছে আমেরিকা। সারা বিশ্বকে চমকে দিয়ে তারা আজ থেকে ২ দশক অর্থাৎ ২০ বছর আগে তাদের পঞ্চম প্রজন্মের বিমান ফ্লাইট টেস্ট করে। এর পর তা প্রায় ১০ বছর আগেই তাদের পঞ্চম প্রজন্মের বিমান সার্ভিসে নিয়ে আসে। এখনও পর্যন্ত আমেরিকার কাছেই শুধু পঞ্চম প্রজন্মের বিমান সার্ভিসে আছে। এছাড়া আর কোনও দেশের হাতে এই পঞ্চম প্রজন্মের বিমান নেই। রাশিয়ার বায়ুসেনার হাতে এখনও পর্যন্ত পঞ্চম প্রজন্মের বিমান আসেনি।

পঞ্চম প্রজন্মের পর এবার বিশ্বের প্রথম দেশ হিসাবে ষষ্ঠ প্রজন্মের যুদ্ধবিমানের পরীক্ষা করল আমেরিকা। ইউনাইটেড স্টেটস অফ আমেরিকার এয়ারফোর্স এর জন্য এই বিমান তৈরি করা হয়েছে। কোন কোম্পানির কি প্রজেক্ট, ফাইটার জেটের নাম এবং এতে কি টেকনোলজি থাকবে তার সম্পর্কে কিছু জানায় নি আমেরিকা, তারা শুধু মাত্র জানিয়েছে তারা ষষ্ঠ প্রজন্মের যুদ্ধবিমানের একটি পরীক্ষামূলক ভার্সন এর পরীক্ষা করেছে যা সার্ভিসে আসতে সময় লাগবে।

১৯৯৭ সালে আমেরিকা প্রথম বিশ্বের পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান F-22 র‍্যাপ্টর এর পরীক্ষা করে যা এখনও বিশ্বের শ্রেষ্ঠ। চীন, রাশিয়ার মত দেশ পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান বানালেও তা এখনও এর সমকক্ষ নয়। এরই মধ্যে আমেরিকা সিক্সথ জেনারেশন বিমানের ও পরীক্ষা করে ফেলল!  তার মানে ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, রাশিয়া, চীন এই সমস্ত দেশের ফিফথ জেনারেশন ফাইটার জেট ২০৩০ সাল নাগাদ যখন পূর্ন ফিফথ জেনারেশন হয়ে উঠবে তখন আমেরিকা ইতিমধ্যে সিক্সথ জেনারেশন ফাইটার জেটের মাস প্রোডাকশন শুরু করে ফেলবে। অর্থাত আবারও আমেরিকা গোটা বিশ্বের থেকে এককদম এগিয়ে রইল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *