যুদ্ধবিমানের জন্য ব্যবহারকারী এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি থাকলে কেরলের এয়ারপোর্টে হয়ত এতো বড় দুর্ঘটনা হতনা

নিউজ ডেস্কঃ সম্প্রতি কেরালায় এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান ল্যান্ডিং র সময় ক্রাস হয়। যার ফলে ১৪ হন নিহত এবং ১২৩ জন আহত হয়েছে। বিমানের পাইলট এবং কো-পাইলট দুজনেই নিহতদের মধ্যে রয়েছেন। এর মধ্যে ছিলেন ক্যাপ্টেন দিপক বসন্ত,যিনি এয়ার ইন্ডিয়াতে কর্মরত হওয়ার আগে ভারতীয় বায়ুসেনার টেস্ট পাইলট ছিলেন।

প্রশ্ন হল এই এয়ারপোর্টে এটি হল কেন? এমনই প্রশ্ন অনেকরই মনে জেগেছে। আসলে এটি একটি টেবিল-টপ এয়ার পোর্ট। অর্থাৎ এটিকে কোন একটি উচ্চভূমির ওপর তৈরী করা হয়েছে। পৃথিবীতে এমন প্রায় ১০০ টি টেবিল-টপ বিমান বন্দর রয়েছে। যেগুলো বিপদজনক এবং ভয়ংকর। এই ধরনের বিমান বন্দর গুলি বৃষ্টির সময় বা খারাপ আব‌ওয়ার সময় আরো ভয়াবহ হয়ে ওঠে। এই এয়ারপোর্ট থেকে টেকঅফ বা ল্যান্ডিং যুদ্ধজাহাজ গুলির কথা মনে করিয়ে দেয়। একবার রান‌ওয়ে থেকে পিছলে বাইরে গেলেই সর্বনাশ। ঠিক সেটাই হয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানের সাথে।

‘এয়ারপোর্ট অথরিটি ইন্ডিয়া’ যদি এই টেবিল টপ বিমানবন্দরটির রান‌ওয়ের আশে পাশে আধুনিক EMAS যুক্ত করত, সেক্ষেত্রে এতোটা বিপদজনক হয়ে উঠত না। এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি থাকলে রান‌ওয়ে থেকে ছিটকে গেলেও, বিমান খুবদ্রুত নিজের গতি হারিয়ে ফেলে দাড়িয়ে যাবে এবং ছিটকে নীচে পরত না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *