ভারতবর্ষের যুদ্ধবিমানকে টেক্কা দিতে চীনের থেকে নকল বিমান ক্রয় করেছিল পাকিস্তান। কারন কি ছিল এমন সিদ্ধান্তের পেছনে?

নিউজ ডেস্কঃ  ১৯৫০ এ যখন সভিয়েত রাশিয়া Mig-21 এর উন্নয়ন শুরু করে,তখন এর একমাত্র লক্ষ্য ছিল আকাশে নিজের আধিপত্য বিস্তার করা। সেটা হয়েছিল‌ও বটে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি উৎপাদিত যুদ্ধবিমান হল MIG-21। সোভিয়েত রাশিয়ার কাছে এটা বিরাট বহর ছিল MIG-21 এর। ভারত‌ও Mig-21 এর একটি বিশাল বড় ব্যবহারকারী রূপে পরিচিত হয়। ভারতীয় বায়ুসেনাতে এখনো পর্যন্ত প্রায় ১২০০ Mig-21 সার্ভিস দিয়েছে,বিগত প্রায় ষাট বছরে।

ভারত ছাড়াও সারা পৃথিবী জুড়েই ছিল Mig-21 এর বাজার।Mig-21 এর দাপট এমন‌ই ছিল যে,বিভিন্ন সময়ে আকাশ যুদ্ধে বারবার এর সামনে দৌড়ানি খেতে হয়েছে আমেরিকান জেটকে। স্বয়ং আমেরিকা এর থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য ,তৃতীয় পক্ষের হাত দিয়ে MIG-21 কিনে আকাশে উড়িয়েছিল। যাই হোক,ভারত Mig-21 এর বড় ব্যবহারকারী ছিল,আর তার সাথে সাথে চীন‌ও। চীন রাশিয়া থেকে এই Mig-21 এর চীনা ভার্ষন লাইসেন্স প্রোডাকশন করার অনুমতি পেয়েছিল।

ভারত প্রায় ১২০০ Mig-21 ক্রয়ের পরেও,তা পারেনি,যেটা সত্যি হাস্যকর ধরনের কূটনৈতিক ব্যর্থতা। যাই হোক চীন সভিয়েত Mig-21 এর নকল করে নিজেদের জন্য বানিয়ে ফেলল J-7 এবং এর এক্সপোর্ট ভার্সন F-7।১৯৮০ এর দিকে পাকিস্তান চীন থেকে এই J-7 ক্রয় করে।অর্থাৎ ভারত যে ফাইটার ষাটের দশক থেকে ব্যবহার করছিল,পাকিস্তান তার চীনা কপি নব্বয়ের দশকে চীন থেকে পায়।আর তার পরেই আসল ঘটনা শুরু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *