হৃদরোগ থেকে দূরে রাখে। অর্জুন গাছের ছালের অসাধারন কিছু উপকারিতা

১. অ্যাজমা রোগের ওষুধ :

অর্জুন গাছের ছাল অ্যাজমার ক্ষেত্রে একটি ধন্বন্তরি ওষুধ হিসাবে কাজ করে। তাই যারা অ্যাজমার সমস্যায় ভুগছেন তারা যদি নিয়মিত অর্জুন গাছের ছাল গুঁড়ো করে দুধে মিশিয়ে খেতে পারেন তাহলে এই অ্যাজমার সমস্যা তাদের অনেক কমে যাবে।

. হৃদরোগ থেকে দূরে রাখে 

অর্জুন গাছের ছাল  হার্টকে ভালো রাখে কার্যকর ভূমিকা পালন করে।এই গাছে ছাল হার্টকে সুস্থ রাখতে বিভিন্ন রকমের সিস্টেম যেমন- কার্ডিয়াক মাসল শক্তিশালী করে, হার্টের মধ্যে রক্ত সঞ্চালন ভালো রাখে এবং করোনারি হার্টের রোগ হতে দেয় না ইত্যাদি কাজ করে।তাই হার্টের সুরক্ষা জন্যে অর্জুন গাছের ছাল সারা রাত জলে ভিজিয়ে পরের দিন বেটে দুধে মিশিয়ে খান। আর তা না হলে ছাল গুঁড়ো করে দুধে মিশিয়ে খেলেই হবে।এতে উপকার পাবেন।

. হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে 

অর্জুন গাছের ছাল হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।তাই যাদের হজমের সমস্যা আছে তারা  নিয়ম করে রোজ রাতে শুতে যাওয়ার আগে হালকা গরম জলে অর্জুন গাছের ছাল গুঁড়ো মিশিয়ে  খান। এতে আপনারা হজমের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন এবং হজম ক্ষমতা বাড়বে।

. লিভারের সমস্যায়ঃ

এই গাছে ছাল আমাদের লিভারকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।লিভারে কোনো সমস্যা হলে আমাদের অনেক রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।তাই লিভারকে ভালো রাখতে হলে অর্জুন গাছের ছাল ব্যবহার করুন। এই  গাছের ছালের গুঁড়ো জলে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন সেই জল পান করুন।এটি লিভারসিরোসিসের টনিক হিসেবে কাজ করে।যা আমাদের লিভারকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

. ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করেঃ

অর্জুন গাছের ছালে উপস্থিত গ্যালিক অ্যাসিড আর লুটেনোনিন যা ক্যানসারের কোষের বৃদ্ধি কমাতে সাহায্য করে। তাই ক্যানসার প্রতিরোধে অর্জুন গাছের ছাল খুবই উপকারী।

. মাড়ির সমস্যা দূর করেঃ

অর্জুন গাছের ছালে রয়েছে ট্যানিন যা মাড়ির বিভিন্ন সমস্যা যেমন- মাড়ি থেকে রক্ত পড়া,  মাড়ি ফুলে যাওয়, লাল হয়ে যায় ইত্যাদি সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। তাই অর্জুন গাছের ছাল গুঁড়ো করে মাজনের হিসাবে ব্যবহার করুন।এতে উপকার পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.