পর্ণ ইন্ডাস্ট্রিতে মিয়া খালিফা মাত্র তিন মাসে কত কামিয়েছিলেন? বিস্তারিত জানালেন

এ এন নিউজ ডেস্কঃ পর্ণ। জিনিসটি অনেকের কাছে মজাদার এবং আনন্দদায়ক মনে হয়। আর হবেই না বা কেন বলুন তো? জিনিসটি তো তৈরি হয় মানুষকে মজা এবং আনন্দ দেওয়ার জন্য। তবে একটা বিষয়। যে মানুষ গুলি এই পর্ণ বা অ্যাডাল্ট ইন্ডাস্ট্রির সাথে যুক্ত তাদের সঠিক সম্মান দেয়না আমাদের সমাজ।

তাদের মধ্যে একজন হল মিয়া খালিফা। মাত্র তিনমাস এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছেন তিনি। আর এই তিন মাসে খুব বড় জোর হলে ৯ লক্ষ টাকা আয় করেছেন তিনি। তাঁর দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি তেমনটাই জানিয়েছেন।

তবে মাত্র এই তিনমাসে তাঁকে অনেককিছু খোয়াতে হয়েছে। অর্থাৎ পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং সবচেয়ে বড় জিনিস নিজের সম্মান। শুধু তাই নয় তিনি নিজেকে গুগল সার্চের এক বস্তুর সাথে তুলনা করেছেন।

তিনি এক সাক্ষাৎকারে জানান যে ” আমি সারা বিশ্বের থেকে নিজের সম্পর্ক সম্পূর্ণ ছিন্ন হয়ে গেছে বলে মনে হয়, বিশেষ করে আমার পরিবার এবং আমার আশেপাশের মানুষের সাথে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন বোধ করছি, আমি সব কিছু ছেড়ে দেওয়ার পর একলা ছিলাম, যদিও এখনও একলা আছি। এবং সবচেয়ে বড় বিষয় কিছু ভুল ক্ষমার যোগ্য নয়, তবে সময় সমস্ত কিছু ঠিক করে দেয়”।

মিয়া তাঁর অ্যাডাল্ট ভিডিও গুলি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে জানান যে ” পুরুষরা যে জিনিসগুলি ভিডিওতে দেখেন, সেই জিনিসগুলি মহিলাদের থেকে আশা করে থাকেন, যা বাস্তবে সম্ভব নয়”।

মিয়া এই ছবি করতে মানুষিক বিষাদে ভুগতেন বলে জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন যে ” আমি সবেচেয়ে বেশি বিষাদে ভুগি যখন বাইরে যাই, সাধারন মানুষ আমায় দেখে, আমার মনে হয় তারা আমার জামা কাপড়ের দিকে তাকিয়া আছে, সেই কারনে নিজেকে খুবই লজ্জিত মনে হয়, তখন নিজেকে মনে হয় যে নিজের সমস্ত স্বাধীনতা, অধিকার হারিয়েছি, তখন নিজেকে গুগলের এক অনুসন্ধানের বিষয় মনে হয়”।

লেবানিস এই প্রাক্তন পর্ণ তারকা ২০০১ সালে অ্যামেরিকাতে আসেন। এবং ২০১৪ সালে পর্ণ ইন্ডাস্ট্রিতে নাম লেখান।

View this post on Instagram

Probably tracking my Postmates order.

A post shared by Mia K. (@miakhalifa) on

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *