বিলাতভূমে বিরাট বাহিনীর শিখরে- ধাওয়ান

বিশ্বদীপ ব্যানার্জিঃ ভারতীয় ক্রিকেট মহলে একটা কথা বেশ দীর্ঘদিন ধরেই চালু। তিনি নাকি কেবল বহুজাতিক টুর্নামেন্টেই(অন্তত ৫টি দল) খেলেন। নাহ! নেহাত কথার কথা নয়। তথ্য বলছে, তাঁর সমগ্র ওডিআই কেরিয়ারের গড় যেখানে ৪৫.৬, সেখানে শুধুমাত্র চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এবং বিশ্বকাপ মিলিয়েই অঙ্কটা পৌঁছে গেছে ৬৫.৪৭ এ। হ্যাঁ, খেলেছেন সবে একটা বিশ্বকাপই, কিন্তু তাতে কি? ২০১৩ এবং ২০১৭— দুই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেই যথাক্রমে ৩৬৩ এবং ৩৩৮ করে দখল নিয়েছিলেন ‘গোল্ডেন ব্যাটে’র।

২০১৫ র বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে ৫১.৫০ র গড় এবং ৯১.৭৬ র স্ট্রাইকরেটে ৪১২ রান করে ভারতীয়দের মধ্যে সর্বাধিক রান সংগ্রাহক ও তিনিই। তাছাড়া, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ৪২ ম্যাচে মোট ২০০২ রান, গড় ৫১.৩৩। বিশ্বকাপের আগে সব মিলিয়ে ধাওয়ান সত্যিই শিখরে। অবশ্য এ তো গেল নিছকই পরিসংখ্যানের কচকচানি। মোদ্দা কথাটা‌ হল, সেই ২০১৩ র চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকেই দেশ-বিদেশ নির্বিশেষে সীমিত ওভারে যে আগ্রাসী মনোভাব দেখিয়ে চলেছেন, তাতে আসন্ন গ্রীষ্মে বিলেতের টিকিট তো বটেই, এমনকি এই ভারতীয় ওপেনারের সাফল্য নিশ্চিত না হওয়ারও কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না সিংহভাগ বিশেষজ্ঞ।

গোটা বিষয়টি ড্রিস্টিল ওয়াটারের চেয়েও স্বচ্ছ— শিখর যেদিন খেলেন, নখ চিবুনো ছাড়া প্রতিপক্ষ অধিনায়কের সেদিন আর কিছুই করার থাকে না। হেডেক শুধু দুটো। এক, ইনিংসের শুরুতে বাঁহাতি সিমারদের বিরুদ্ধে দুর্বলতা; দুই, সেট হওয়ার পরেও অহেতুক উইকেট ছুড়ে আসার প্রবণতা। ‘শোলে’ সিনেমা মনে পড়ে? সেলুলয়েডের গব্বর তো খুব ভিলেন হয়েও প্রায় সমস্ত ফুটেজ একাই নিয়ে চলে গিয়েছিলেন। প্রিয় বিলেতের মৃগয়াভূমিতে ১৫০ কোটির হিরো গব্বর কি করেন, এবার সেটাই দেখার।

(ক্রমশ…)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *