ফ্যাকাশে চোখ হোক বা হলুদ চোখ? সহজেই বুঝে নিন আপনার রোগ

নিউজ ডেস্কঃ পঞ্চ ইন্দ্রিয় বলতে আমরা বুঝি চোখ, নাক, কান, জিহ্বা এবং ত্বক। এই পাঁচ ইন্দ্রিয়ের শক্তিতে বলীয়ান হয় প্রাণীজগতের সবচেয়ে অনুভূতিশীল প্রাণী মানুষ। এবং এই পঞ্চ ইন্দ্রিয়র মধ্যে একটি হল চোখ যার সাহায্যে আমরা আমাদের শরীরের নানান ধরনের সমস্যা বুঝতে পারি। এই চোখের সাহায্যেই জানা যায় আমাদের শরীরে কীসের প্রয়োজন।যেমন ধরো- শরীরে রক্ত কমে যাওয়া যা আমরা আমাদের চোখের সাহায্যেই আমরা অনেক সময় বুঝতে পারি। এছাড়াও আরও অনেক সমস্যা আছে যা আমরা চোখের সাহায্যেই সহজেই  বুঝতে পারি।তাই আপনাদের চোখই অতি সহজেই বলে দিতে পারে যে আপনাদের কি কি সমস্যা আছে। তাই জেনে নিন যে চোখের কি কি পরিবর্তন আপনাদের শরীরের কোন কোন সমস্যার ইঙ্গিত দেয়।

ফ্যাকাশে চোখঃ অনেক সময় অনেকের চোখ ভিতরটা ফ্যাকাশে অর্থাৎ চোখে নিচে পাতার ভিতরের দিকটা বেশ ফ্যাকাশে হয়ে যায় যার ফলে আপনাদের বুঝতে হবে যে সেই ব্যক্তিতা রক্তস্বল্পতায় ভুগছে।এটি হয় যখন শরীরে আয়রন এবং লৌহের ঘাটতির কারনে লোহিত রক্ত কনিকা কমে যায়।আর তখনই চোখের পাতার ভিতরের অংশ ফ্যাকাশে দেখায় যা ইঙ্গিত দেয় যে শরীরে রক্তশূন্যতার দিকে।আবার দেহের ভিতরে কোনো কারনে রক্তক্ষরণ থেকেও হতে পারে।আর এর জন্য অবশ্যয় চিকিৎসকদের দেখানো জরুরী।

চোখের ভিতর হলদে ভাবঃ  চোখের ভিতরের হলদে ভাব দেখেই আমরা বুঝি যে এটি জন্ডিসের লক্ষন।তবে চোখের ভিতরের হলদে ভাব শুধু মাত্র জন্ডিসের লক্ষন নয়।এটি আরও সমস্যার ইঙ্গিত দিয়ে থাকে।যেমন চোখের ভেতরের দিকটায়, চোখের পাতার নিচে হলদে দেখা গেলে, সেখানে মেদ জমতে দেখা গেলে,ফোঁটা ফোঁটা জল জমে থাকলে তা টাইপ-টু ডায়াবেটিসের লক্ষণ হতে পারে।এছাড়াও যারা চশমা ব্যবহার করে তাদের এই লক্ষন অনেক সময় চশমা পাল্টানোর সময়ের ইঙ্গিত দেয়।এই জন্যই এই ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হলে অতি অবশ্যই ডাক্তার দেখিয়ে চিকিৎসা করুন।যার ফলে অনেক সময়ই বড় ধরনের বিপর্যয় এড়ানো যায়।

ফোলা চোখঃ অনেক সময় অনেকের চোখ ফুলে উঠে।যা একদম অস্বাভাবিক রকমের চোখ ফুলে ওঠা এবং এই চোখ ফুলে ওঠাটা দীর্ঘদিন থাকা হয়তো। আর এই রকম সমস্যা অনেক সময় থাইরয়েডের মতো রোগের ইঙ্গিত হতে পারে।এই দ্রুত ডাক্তার দেখানো জরুরী।

ছোটবড় চোখের তারাঃ আমাদের চোখের মণির মাঝখানের কালো অংশ থাকে যাকে আমরা বলা হয় পিউপিল বা চোখের তারা। এই চোখের তারার আকার দুটি চোখের মণিতেই একইরকম থাকে।যদি এই চোখের তারার আকার পাল্টে যায় বা  আলোর প্রতিক্রিয়ায় একই রকমভাবে সাড়া না দেয় এই রকম সমস্যার সম্মুখীন হলে।চিকিৎসকের পরামর্শ নিন যে  আপনার একটা স্ট্রোক হয়ে গেল কিনা বা মস্তিষ্কে টিউমারের কোনো সমস্যা হয়েছে কিনা সেটা যাচাই করার জন্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.