মাদক দ্রব্যের থেকেও বেশী ক্ষতি করছে পর্ণ ভিডিও

নিউজ ডেস্ক – বর্তমান যুগে পর্ণ ভিডিও এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে যেখানে গোটা  প্রজন্মের বিশেষ করে যুবকদের গ্রাস করে চলেছে। আজ পর্ন ভিডিও দেখার দরুন স্মৃতিশক্তি হ্রাস পাচ্ছে  তরুণ সমাজের। এছাড়াও এর কারণে দূরত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে নিজের পরিবার পরিজন সহ বন্ধু-বান্ধব মহলেও।  

চিকিৎসকদের মতে পর্ণ ভিডিও দেখার সময়  শরীরে এক আলাদাই হরমোন নিঃসরণ হয়। যার কারণে শরীরের এর প্রভাব দেখা যায়। পর্ণ ভিডিও কোন অংশেই মাদকদ্রব্যের থেকে কম নয়। কারণ বর্তমান তরুণ প্রজন্মকে মাদকদ্রব্যের মতোই পর্ণ ভিডিও  গ্ৰাস করছে। 

এই বিষয়ে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোসাইকাট্রিস্ট ডাক্তার ভ্যালেরি ভুন গবেষণা করে জানাচ্ছেন, পর্ণ  ভিডিও মাদকদ্রব্য থেকেও মারাত্মক। কোন ব্যক্তি  অতিমাত্রায় পর্ণ ভিডিও দেখলে তার মধ্যে এক প্রকার হ্যালুসিনেশন কাজ করবে যার কারণে মস্তিষ্কের ক্রিয়া-কলাপ হ্রাস  পাওয়ায় কোন মানুষের নাম বা কোন বস্তু মনে রাখতে সমস্যা হবে। এছাড়াও এই ভিডিও দেখলে নিজের সঙ্গীকে ও একাপ্রকার আলাদা রূপে ভাবতে শুরু করেন সেই ব্যক্তি। যার ফলে দাম্পত্য জীবনে এর প্রভাব পড়তে পারে। পর্ন ভিডিও দেখলে স্নায়ু দুর্বল হয়ে পড়ায় স্মৃতিশক্তি লোপ পায় সেই সকল ব্যক্তিদের।  নিয়মিত ভিডিও দেখার অভ্যাস করলে ‌ একপ্রকার নির্ভরশীলতা দেখা যায় সেই সকল ব্যক্তিদের মধ্যে। এই ভিডিও প্রতিক্রিয়া হিসেবে  সারাদিন  শারীরিক কোনও চাহিদা তৈরি না-হলেও একটা নির্দিষ্ট সময়ে দেহ চাইবে উত্তেজিত হতে। অর্থাৎ, এটা এমন এক অভ্যেসে পরিণত হবে, যার ফলে শরীর এবং মনকে কোনওভাবেই নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হবে না। এক ব্যক্তির শরীরের উপর অনেকটা ড্রাগসের   মতো কাজ করে এই পর্ণ ভিডিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published.