শরীরের ওজন বাড়াতে পারে। কিশমিশের অসাধারন ৫ টি উপকারিতা

নিউজ ডেস্কঃ আট থেকে আশি সকলেই কমবেশী মিষ্টি খেতে পছন্দ করে। আর সেই মিষ্টির তালিকাটা কিন্তু বেশ বড়। তবে ছোট বড় অনেকেরই পছন্দের তালিকায় রয়েছে কিসমিসের নাম। এটিকে সবথেকে স্বাস্থ্যকর শুকনো ফল বলা হয়ে থাকে। এই কিসমিশ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয় ফুড সাপ্লিমেন্ট, ওষুধ এবং মিষ্টিতে৷ পাশাপাশি ড্রাই ফ্রুটের অনেক গুণই রয়েছে৷ স্বাদের পাশাপাশি রয়েছে এর বিশেষ কিছু গুনাগুন ও।

1. কিসমিশে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকার কারনে শরীরের অতিরিক্ত জল শোষণ করে পাচন ক্রিয়ায় সাহায্য করে থাকে পাশাপাশি যারা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগে থাকেন তাদের জন্যও এটি বিশেষভাবে কাজ করে৷

2. স্বাস্থ্যকর পদ্ধতিতে শরীরের ওজন বাড়াতে হলে কিসমিশ হল সবথেকে ভাল উপায়৷ পাশাপাশি কিসমিশেপ্রচুর পরিমানে গ্লুকোজ এবং ফ্রুক্টোস থাকার কারনে ইহা প্রচুর পরিমাণে শক্তিও প্রদান করে থাকে৷

3. কিসমিশ দাঁতের পক্ষে ভীষণ ভালো। কারনে এটি দাঁতের ক্ষয় রোধ করতে সাহায্য করে থাকে৷ পাশাপাশি দাঁতে কোন খাওয়ার আটকে গেলে সেটিকে কিসমিশ বের করতে বিশেষভাবে সাহায্য করে৷

4. সমীক্ষায় দেখা গেছে যে কিসমিশ ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগ কমাতে সাহায্য করে থাকে৷

5. কিসমিশে প্রচুর আয়রন এবং ভিটামিন -বি কমপ্লেক্স থাকার কারনে এটি অ্যানিমিয়া সাড়ানোর পাশাপাশি নতুন রক্তকোষ সৃষ্টি করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.