স্পেনের প্রচুর গুপ্তধন রয়েছে আমেরিকাতে। জানুন বিস্তারিত

নিউজ ডেস্কবহু প্রাচীন যুগ রাজা কিংবা সম্রাটের আমলে গুপ্তধন ছিল নিতান্তই নগণ্য। তবে বর্তমান সমাজে এমন কোন ব্যক্তি নেই যার গুপ্তধনের বিষয়ে কৌতুহল প্রকাশ করে না। তবে এমন একটি সমুদ্র রয়েছে যেখানে আজও লোকায়িত অবস্থায় রয়েছে হাজারো গুপ্তধন। 

লোকোভাষ্য মতে জানা যায় ১৭১৫ সালে ১১ টি জাহাজ নিয়ে দেশে ফিরছিলেন স্প্যানিয়ার্ডরা। মূলত জলদস্যুর হাত থেকে বাঁচতে ও জাহাজে অবস্থিত একাধিক মণিমাণিক্য সহ মূল্যবান পাথর রক্ষার্থে হারিকেনের সময়কালের জাহাজ পাড়ি দিয়েছিলেন তারা। তবে সমুদ্রযাত্রা করার মাত্র ৭ দিনে মাথাতেই তীব্র হারিকেনের তাণ্ডবের রোষে পড়ে ফ্লোরিডা উপকূলীয় অঞ্চলে ১১টি  জাহাজ সহ ডুবে মৃত্যু হয় প্রায় হাজারেরও বেশি মানুষের। মানুষের সাথে সাথে জলের তলে তলিয়ে যায় মূল্যবান সম্পদ।

পরবর্তীতে অবশ্য কিপ ওয়াগনার নামের এক গুপ্তধন শিকারী ডুবে যাওয়া জাহাজ গুলিকে উদ্ধার করে। কিন্তু মূল গুপ্তধনের পরিমাণের চেয়ে খুব নগণ্য পরিমাণে কিছুসংখ্যক মূল্যবান রত্ন উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি। তবে সকলের অনুমান সান মিগুয়েল নামের একটি জাহাজ করেই সিংহভাগ রত্ন পাড়ি হচ্ছিল। তবে বহু খোঁজাখুঁজির পরেও সেই জাহাজের কোনো চিহ্ন খুঁজে না পাওয়ায় হতাশ হয়েছেন বহু উদ্ধারকারী দল।  তবে সম্প্রতি কানাঘুষো শোনা যায় আজও তলে তলে সেই জাহাজের অনুসন্ধান জারি রেখেছে কিছু সংখ্যক মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.