সোনার গয়না দীর্ঘদিন উজ্জ্বল রাখতে সিঁদুরের পাশাপাশি যে জিনিস গুলি ব্যবহার করবেন

১)সোনার গয়না দীর্ঘদিন ব্যবহার করার পর উজ্জ্বলতা নষ্ট হয়ে যায়।ব্যবহার করার পর সিঁদুর মাখিয়ে রেখে দিন।দেখবেন সোনার গয়না চকচক করবে। এছাড়াও কুমড়োর রস দিয়েও গহনা পরিষ্কার করা যায়।

২)বিয়ে বাড়িতে যেদিন যাবেন সেইদিন সোনার গহনাগুলি কাঁচা হলুদ বা হলুদগুঁড়ো জলে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন।তারপর ভালো করে মুছে নিন দেখবেন গহনাগুলোর উজ্জ্বলতা বাড়বে। 

৩) টুথপেস্ট দিয়ে ঘষে দিন আপনার সোনা-রুপোর গয়না।জল না দিয়ে শুকনো কাপড়ে পেস্ট মুছে ফেলুন। দেখুন আপনার সোনা-রুপোর গয়না ঝকঝকিয়ে উঠবে।

৪) রুপোর জিনিস জলের সঙ্গে নুন আর রিঠা দিয়ে মিনিট পনেরো ফোটালে রুপোর স্বাভাবিক রঙে ফিরে আসবে।

৫) পাথরের গহনা টুথপেস্ট দিয়ে পরিষ্কার করুণ।নতুনের মত ঝলমল করবে। সেলাই মেশিনের তেলের সঙ্গে হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে ঐ তেল দিয়ে পিতলের বাসন ঘষলে ঝকঝকে হয়ে ওঠে।

৬)রাসর সাথে সামান্য পাতিলেবুর রস মিশিয়ে ঘষুন কাঁসার জিনিস সোনার মতো চকমক করবে।

৭) হলুদ গুড়োর সাথে কয়েক ফোঁটা সরষের তেল দিয়ে পেতলের বাসন ঘষলে চকচক করবে।

৮)রুপোর বাসন, কাটা চামচ বা গয়নাগাটি তেঁতুলে গোলা জলে ফুটিয়ে নিন।ঘসা মাজা করতে হবে না।ফোটালেই ঝকঝক করবে।

৯)এনামেলের বাসন দাগ ধরে গেলে নেল পালিস রিমুভার ব্যবহার করতে পারেন। ১০)চাল ধোয়া জলে স্টিল ও কাচের বাসন কিছুক্ষন ডুবিয়ে রেখে তারপর ধুয়ে নিলে বাসনগুলি ঝকঝক করবে।পেতল-কাসার বাসনপত্র দীর্ঘ দিন ব্যবহার না করার ফলে দাগ ধরে যায়।মাথার চুল ও সরষের তেল সহযোগে মাজুন।দেখবেন বাসনগুলো ঝকঝকে হয়ে উঠবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.