পৃথিবীর কোন দেশের নাগরিকরা ১৯০টি দেশে ভিসা ছাড়াই ভ্রমন করতে পারে?

নিউজ ডেস্ক – বিদেশ বিভূতি ভ্রমণের ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম যে বৃষ্টির প্রয়োজন সেটি হল পাসপোর্ট। পাসপোর্ট না হলে বিদেশ ঘোরা প্রায় দুঃস্বপ্নকর ব্যাপার। কিন্তু পাসপোর্টের রং নিয়ে কোনদিন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে কোন পর্যটক বিশেষ মাথা ঘামাননি। কিন্তু বর্তমানে পাসপোর্ট এর রং বিশ্লেষণ করে তার একটি যুক্তকর প্রমাণ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা জানিয়েছেন শুধুমাত্র পাসপোর্ট কেক কালারফুল করতেই রং ব্যবহার করা হয় না। এর পিছনে লুকানো রয়েছে সরকারের বিশেষ কিছু তথ্যদি। 

বিষয়টি সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের আধিকারিকদের বক্তব্য পৃথিবীর ১৯৯টি পাসপোর্ট ও ২২৭টি ভ্রমণ গন্তব্যের ওপর ভিত্তি করে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর পাসপোর্টের র‍্যা​ঙ্কিংয়ের প্রথম স্থান অধিকার করেছে এশিয়ার তিনটি দেশ। তবে এর মধ্যে যৌথভাবে এক নম্বরে আছে জাপান ও সিঙ্গাপুর। এই দুই দেশের নাগরিকরা ১৯০টি করে দেশে ভিসামুক্ত কিংবা ভিসা-অন-অ্যারাইভাল সুবিধা পাবেন। তবে শুধু এই নয় এরকম কয়েকটি দেশের তালিকা রয়েছে। এই সকল দেশ গুলি একমাত্র ভিসামুক্ত কিংবা ভিসা-অন-অ্যারিভালের সুবিধা পাবে। ২০১৯ সালের গণনা করা ১০টি দেশের শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকা হলো –  ১. জাপান, সিঙ্গাপুর (১৯০ দেশ) ২. ফিনল্যান্ড, জার্মানি, দক্ষিণ কোরিয়া (১৮৮ দেশ) ৩. ডেনমার্ক, ইতালি, লাক্সেমবার্গ (১৮৭ দেশ) ৪. ফ্রান্স, স্পেন, সুইডেন (১৮৬ দেশ) ৫. অস্ট্রিয়া, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল (১৮৫ দেশ) ৬. বেলজিয়াম, কানাডা, গ্রিস, আয়ারল্যান্ড, নরওয়ে, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, সুইজারল্যান্ড (১৮৪ দেশ) ৭. মাল্টা, চেক রিপাবলিক (১৮৩ দেশ) ৮. নিউজিল্যান্ড (১৮২ দেশ) ৯. অস্ট্রেলিয়া, লিথুয়ানিয়া, স্লোভাকিয়া (১৮১ দেশ) ১০. হাঙ্গেরি, আইসল্যান্ড, লাটভিয়া, স্লোভেনিয়া (১৮০ দেশ)। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.