ডিম ব্যবহার করে কিভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন?

ডিম খেতে ভালো লাগে নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ কঠিন। আর ডিম যে কেবল খেতেই ভালো তাই নয় ডিমে থাকে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন ও ।অবশ্য শুধু প্রোটিন ই নয় ডিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ উপাদান ও উপস্থিত ।প্রচুর পুষ্টিগুণে ভরপুর এই ডিম খাওয়া যে শরীরের পক্ষে উপকারী এ কথা আমরা সকলেই জানি।কিন্তু জানেন কি ডিম এর সাদা অংশ ব্যবহার করে ত্বকের যত্ন নেওয়া ও সম্ভব।

আসুন জেনে নেই ডিম ব্যবহার করে কিভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া যায়।

ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করতে :

তৈলাক্ত বা অয়েলি স্কিনে বয়সের দাগ দেরিতে পরে ঠিকই তবে তৈলাক্ত ত্বকে ব্রন,ব্ল্যাকহেডস জাতীয় সমস্যাও বেশি দেখা যায় ।এক্ষেত্রে ডিমের সাদা অংশ ত্বকে ব্যবহার করলে এই সমস্যাগুলি থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে ।

এর জন্য প্রথমে হালকা গরম জল দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে ।তারপর একটি বাটিতে ডিমের সাদা অংশটি ফাটিয়ে নিয়ে মুখে তা লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে ।ডিমের সাদা অংশটি শুকিয়ে এলে তারপর ভালো করে ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে সেটি ।নিয়মিত যদি এটি ব্যবহার করেন ত্বকে তবে তৈলাক্ত ত্বকের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূরীকরণ:

মুখের অবাঞ্ছিত লোম বড় সমস্যায় ভোগায় আমাদের ।বিউটি পার্লারে গিয়ে নিয়মিত থ্রেডিং ,ওয়াক্সিং করলেও কিছুদিন পরেই আবার কপালে,ঠোঁটের ওপর দেখা যায় এই লোম ।এক্ষেত্রে মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে অনেকটা সাহায্য করে ডিমের সাদা অংশ ।

অবাঞ্ছিত লোমের হাত থেকে রেহাই পেতে একটি পাত্রে ডিমের সাদা অংশটি ঢেলে নিয়ে ভালো করে তা মুখে একবার লাগাতে হবে ।প্রলেপ কিছুটা শুকিয়ে এলে পুনরায় ডিমের সাদা অংশের প্রলেপ আরেকবার লাগাতে হবে মুখে।এইভাবে দু-তিনবার ডিমের সাদা অংশ মুখে লাগিয়ে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন ।প্রলেপ সম্পূর্ণ ভাবে শুকিয়ে গেলে চামড়ার মত টেনে তুলে ফেলুন তা ।দেখবেন ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম অনেকটাই দূর হয়েছে

ব্রণর সমস্যায়:

ব্রণর সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ও ডিমের সাদা অংশ ব্যবহার করতে পারেন ।এতে যেমন মেলে তাড়াতাড়ি ফল তেমনি ব্রণের সমস্যাও সম্পূর্ণভাবে নিরাময় হয়।ত্বকের যে যে অংশে ব্রণও আছে সেখানে ডিমের সাদা অংশের প্রলেপ লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেললেই মিলবে ফল ।অত্যন্ত দ্রুত ফল পেতে এর সাথে হলুদ ও যোগ করতে পারেন । 

সুন্দর ত্বকের জন্য

সুন্দর, সুস্থ দাগহীন ত্বক আমরা সকলেই চাই ।না। এর জন্য দরকার নেই কোন নামিদামি কোম্পানির ক্রিম ব্যবহারের। একটি পাত্রে ডিমের সাদা অংশ  আলাদা করে নিন ।এরপর তুলো দিয়ে গোটা মুখে ভালো করে এর প্রলেপ লাগিয়ে নিন।প্রলেপ শুকিয়ে গেলে ভাল করে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ত্বক ।দেখবেন ত্বক হয়ে উঠবে সুন্দর ও সতেজ।

বয়সের ছাপ দূর করতে:

ত্বকে বয়সের ছাপ দূর করতে এবং তরুণ্য ফিরে পেতে ডিম অত্যন্ত সাহায্য করে ।একটি পাত্রের ডিমের সাদা অংশ, 1 টেবিল চামচ এলোভেরা জেল ,1 টেবিল চামচ গাজর এর পেস্ট ভালো করে মিশিয়ে গোটা মুখে 15 মিনিট লাগিয়ে অপেক্ষা করুন ।এরপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেললেই দেখবেন তো আগের থেকে অনেকটা সতেজ দেখাচ্ছে ।নিয়মিত এই ফেস্প্যাক ব্যবহার করলে ত্বকের যেকোনো রকম বলিরেখা তো দূর হবেই সেই সাথে ত্বকে ফিরে আসবে লাবণ্য ।

চোখের ফোলাভাব দূর করতে:

স্ট্রেস, ঘুমের অভাবে চোখের চারপাশে অনেক সময় ফোলা ভাব দেখা দেয় ।এই ফোলা ভাব দূর করতে ব্যবহার করুন ডিমের সাদা অংশ ।একটি পাত্রে দু’চামচ কফি গুঁড়ো ও ডিমের সাদা অংশ ভালোভাবে মিশিয়ে চোখের চারপাশে ভালো করে লাগিয়ে কুড়ি মিনিট অপেক্ষা করুন ।জল দিয়ে এরপর মিশ্রণটি ধুয়ে ফেললেই দেখবেন ফোলা ভাব অনেকটা কমেছে ।নিয়মিত এই মিশ্রণের ব্যবহারে চোখের ফোলা ভাব যেমন কমবে তেমনি ডার্ক সার্কেল ও দূর হবে ।

স্ক্রাব হিসেবে

ত্বক এর ময়লা,ব্ল্যাকহেডস প্রভৃতি দূর করতে স্ক্রাব হিসেবেও খুব ভালো কাজ দেয় ডিমের সাদা অংশ ।এটি ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে । একটি পাত্রে 1 টেবিল চামচ মধু ও ডিমের সাদা অংশ একসাথে মিশিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে গোটা মুখ ও গলায় তা লাগিয়ে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন ।মিশ্রণটি শুকিয়ে এলে ভালো করে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন গোটা মুখ ।দেখবেন ত্বকে ফিরে এসেছে জেল্লা

Leave a Reply

Your email address will not be published.