শরীরের ওজন কমাতে চাইলে এখনি খাওয়া শুরু করুন। সবেদার অসাধারন ১০ টি উপকারিতা

নিউজ ডেস্কঃ সবেদা একটি ফাইবার সমৃদ্ধ ফল, তাই একে প্রাকৃতিক জোলাপ হিসাবে ব্যবহার করা যায়।এতে পর্যাপ্ত খাদ্য আঁশ রয়েছে যা হজম, বদহজম বা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। আধাপাকা সবেদা জলে ফুটিয়ে কশ বের করে খেলে ডায়ারিয়া ভালো হয়।

এতে প্রদাহ বিরোধী উপাদান রয়েছে যা ক্ষয়কারক গ্যাস্টিক, আন্ত্রিক প্রদাহ, পেট জ্বালা ইত্যাদি রোগের সমাধান করে।

সবেদা খেলে মানসিক চাপ ও উদ্বেগ দূর হয়। এছাড়া সবেদাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং সি। নিয়মিত সবেদা খেলে মুখের ক্যান্সার প্রতিরোধ করা যায় এবং দাঁত ভালো থাকে।

শরীরের কোষের ক্ষতিসাধন প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। নিয়মিত সবেদা খেলে ঘন ঘন ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা কমে যায়। শ্বাসকষ্ট দূর করতে সাহায্য করে এবং ফুসফুস ভালো রাখে।

ত্বকে বয়সের ছাপ দূর করতে সবেদা সহায়তা করে। সবেদাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ আছে। এটি ত্বক, চোখ ও হাড়ের জন্য খুব ভালো।

শরীরের ওজন কমাতে চাইলে নিয়মিত সবেদা খেতে পারেন। সবেদায় চর্বি থাকে না। তাই বেশি খেলেও শরীরে মেদ বাড়ার আশঙ্কা থাকে না।

সবেদায় পুষ্টি ও কার্বোহাইড্রেট থাকে কর্মজীবী মায়েদের জন্য অনেক উপকারি। এটা গর্ভাবস্থায় বমি বমি ভাব এবং মাথা ঘোরা দূর করতে সাহায্য করে।

সবেদায় থাকা ক্যালশিয়াম, আয়রন ও ফসফরাস হাড়ের গঠনকেও মজবুত করে।

হঠাৎ করে সর্দি, কাশি, হলে ওষুধে বিকল্প হিসাবে সবেদা খেতে পারেন।

সবেদায় আছে প্রচুর পরিমাণে গ্লুকোজ। এই গ্লুকোজ শক্তি দেয়। কাজেও আসে গতি।

সবেদা ফলের স্নায়ু শান্ত করার অসাধারন এক ক্ষমতা আছে। তাই খেতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.