কোন দেশের জনগন অফিসিয়াল টুইটার একাউন্ট একদিনের জন্য ব্যবহার করে?

নিউজ ডেস্কঃ মাতৃ গর্ভাবস্থায় শিশুর লিঙ্গ যাচাই করে গর্ভপাত করা বৈধ।সুইডেন ইউরোপ মহাদেশের একটি রাষ্ট্র। দেশটির রাজধানী স্টকহোম। ও সুইডেন এর সবথেকে বড় শহর হল ক্যাপিটাল। এর উত্তর-পূর্বদিকে রয়েছে ফিনল্যান্ড, পশ্চিমদিকে নরওয়ে ও দক্ষিণ-পশ্চিমদিকে ওরেসুন্দ সেতু। 

সুইডেন দেশের কিছু অজানা তথ্য

 1. সুইডেন দেশের মোট আয়তন ৪৫০২৯৫ বর্গমাইল। আয়তনের দিক থেকে এটি ইউরোপের তৃতীয় সর্ববৃহৎ দেশ। এবং বিশ্বের ৫৫ তম বড়ো দেশ। 

2.সুইডেন দেশের মুদ্রার নাম নাম Swedish krona। এক Swedish krona ভারতীয় ৭ রুপি সমান হয়।

3.সুইডেনের জাতীয় ভাষাকে সুইডিশ বলা হয়। সুইডিশ ভাষার পাশাপাশি সুইডেনে ফিনিশ, রোমানিয়ান, ও ইংলিশ ভাষারও এখানে কথা বলা হয়। 

4.  সুইডেনের অফিসিয়াল টুইটার একাউন্টটি প্রতি সপ্তাহে একেকজন নাগরিককে দেয়া হয়, নিজের মতোকরে পরিচালনা করার জন্য। এটি সত্যিই একটি অবাক করা বিষয়। 

5.সুইডেন ও ফিনল্যান্ড দেশের সীমান্তে একটি এমন গল্ফ গ্রাউন্ড আছে যেটি দুই দেশের মধ্যে অবস্থিত, এই গ্রাউন্ডে গলফ খেলতে হলে দুটি দেশের সীমানা পার হতে হবে। 

6. সুইডেনের পাসপোর্ট বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী পাসপোর্ট গুলির মধ্যে একটি। পাসপোর্ট পদমর্যাদার হিসেবে সুইডেনের পাসপোর্টে তৃতীয় নাম্বারে রয়েছে। বিশ্বের মধ্যে সবথেকে বেশি বিনা ভিসায় ভ্রমণকারী পাসপোর্ট হলো সুইডেনের পাসপোর্ট। 

7. আমাদের দেশে যেমন ভ্রূণ  শিশুর লিঙ্গ আগে থেকে কোন দম্পতি কে জানানো হয় না এবং শিশুর লিঙ্গ যাচাই করা একটি আইনত অপরাধ। কিন্তু সুইডেন দেশটিতে মাতৃ গর্ভাবস্থায় শিশুর লিঙ্গ যাচাই করে গর্ভপাত করা বৈধ। 

8. সুইডেনের প্রতিটা জিনিস রিসাইকেল করে ব্যবহার করা হয়। এখানকার প্রায় সব প্রকার আবর্জনা রিসাইকেল করা হয়। আমাকে এখানকার আবর্জনা বহনকারী গাড়ি গুলো চালানোর জন্য ব্যবহার করা হয় রিসাইকেল পদ্ধতিতে তৈরি  বিদ্যুৎ বা বায়োগ্যাস । 

9. সুইডেনের শিক্ষার হার 99 শতাংশ এবং এখানে 6 থেকে 16 বছর বয়সি সবার জন্য শিক্ষা বাধ্যতামূলক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.