গ্রীকদের সৌন্দর্যের দেবীর নাম কি ছিল?

নিউজ ডেস্কঃ গ্রিকদের দেবদেবীর কথা প্রায়শয় শোনা যায়। বিশেষ করে তাদের সভ্যতাতে একাধিক জাগ্রত দেবদেবীর কথা মাঝে মধ্যেই উঠে আসে।

১)Osiris: এই দেবতাকে জীবন মৃত্যুর অধীশ্বর বলা হত।তাকে মৃত্যু ও পুনর্জন্মের দেবতা বলেও মনে করা হত।এই দেবতাকে রা দেবতার পুত্র বলে মনে করা হত।এবং ওসিরিসের স্ত্রী ছিলেন আইসিস ও পুত্র ছিলেন হোরাস।

২) Hathor: এই দেবী ছিলেন মুলত প্রেম, আনন্দ ও সৌন্দর্যের দেবী। তিনি ছিলেন বহু গুনের অধিকারি ছিলেন।এই দেবিকে সূর্য দেবতার মা বলে মনে করা হত।প্রাচীন  মিশরীয়দের আকা ছবিতে এই দেবীর মাথায় গরুর মতো দুটি শিং দেখতে পায়।সেইসময় গরুকে উর্বরতার প্রতীক বলে মনে করা হত তাই তার বেশিরভাগ ছবিতে তাকে গরুর সাথে তুলনা করতে দেখা গিয়েছে।এই দেবি ছিলেন সেই সময়কার বেশি পুজিত দেবদেবীদের মধ্যে একজন।মিশিরে এখনও তার মন্দির আছে।

৩) Horus: হোরাসকে ওসিরিস এবং আইসিসের পুত্র বলে মনে করা হত।এই দেবতাকে মনে করা হত বিশাল আকাশে প্রতীক এবং সূর্যকে তার শক্তির প্রকাশ বলে মনে করা হত।এছাড়াও মনে করা হত যে সূর্য হল তার ডান চোখ এবং চাঁদ হল তার বাম চোখ।বাজ পাখি ছিল তার প্রতীক তাই মাথার আকৃতি ছিল বাজ পাখির মতো।প্রাচীন রাজবংশের পতনের আগেই এই দেবতার পুজা শুরু হয়ে ছিল।

৪) Isis: আইসিস ছিলেন ওসিরিসের স্ত্রী ও হোরাসের মা।তিনি ছিলেন জাদুশক্তি ও জ্ঞানের দেবী।আই দেবীর প্রিয় পশু ছিল গরু তাই তিনি গরুর সিং ও ধারন করতেন।আই দেবী অন্য সব দেবতাদের তুলনায় আইসিসের জাদুশক্তি অনেক বেশি ছিল।এছাড়াও জানা যায় যে তিনি শত্রুদের হাত থেকে রাজ্যকে রক্ষা করতে পারতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.