হার্ট ঠিক রাখতে ভালো ঘুমের পাশাপাশি যে জিনিস গুলি করবেন

নিউজ ডেস্কঃ আমরা নিজেদেরকে সুস্থ রাখতে সব সময় খাদ্যাভাসের উপর নজর দিয়ে থাকি যে কোন খাবার খাওয়া উচিত আর কোন খাবার নয়।শরীরের জন্য এই খাদ্যাভাসের বাছবিচার করাটা প্রয়োজনী কিন্তু তার সাথে অরেকটি বিষয়ও খুবই গুরুত্বপূর্ণ সেটি হল সময়।কারন বেশি রাতের খাবার খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে একদমই ভালো নয়।তাই  রাতের খাবারটি একটু আগে অর্থাৎ এই ৯ টার মধ্যে খেয়ে নিলে অনেক সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।সেইগুলি কি কি জেনে নিন। 

১) ঘুম ভাল হবে- ঘুম মানুষের সুস্থ রাখতে খুবই প্রয়োজনী।এই জন্য ঘুম যাতে ঠিকঠাক হয় তার জন্য রাতে তাড়াতাড়ি খাবার খাওয়া উচিত তাহলে  খাওয়া এবং ঘুমের মাঝখানে একটা ব্যবধান থাকবে যা খুব দরকার।কারণ ঘুম এবং খাওয়াদাওয়া মধ্যে সময়ের ব্যবধান যদি খুব অল্প থাকে তাহলে ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে।কারন ঘুমালে হজম প্রক্রিয়া সচল থাকে, যা গভীর ঘুমকে প্রভাবিত করে।তাই  দেরিতে খাওয়া হলে তা হজমে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে, যার ফলে আমাদের ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে।

২) ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে- ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখতে হলে বিশেষজ্ঞদের মতে সন্ধ্যা ৬-৭টার মধ্যে রাতের খাবার খেয়ে নেওয়া ভালো।কারন এতে শরীরে কম ক্যালরি যায় এবং শরীর তা সঠিকভাবে ব্যবহার করার সুযোগ পায়।

৩) রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক থাকে-   রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে হলে রাতে তাড়াতাড়ি খাবার খান।এতে রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক থাকবে তার সাথেশরীরেও সুস্থ এবং ঘুমও ভাল হবে।

৪) হজমে সাহায্য করে- রাতের তাড়াতাড়ি খেয়ে নেওয়ার ফলে খাবার খাওয়া এবং ঘুমানোর মধ্যে সময়ে অনেকটা ব্যবধান থাকে যার ফলে ভালোভাবে খাবার হজম হতে।কিন্তু যদি হতে খাবার খাওয়া এবং ঘুমানোর মধ্যে সময়ে প্রায় না থাকার মতো থাকে তাহলে হজমের সমস্যা দেখা দেয়।যার ফলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা যেমন- অ্যাসিডিটি, গ্যাস, এবং পেটে ব্যথা ইত্যাদি দেখা দিতে পারে। 

৫) হৃদযন্ত্র ভাল রাখে- হৃদযন্ত্র ভাল রাখতে তাড়াতাড়ি রাতের খাবার সেরে নিন।কারন রাতে দেরি করে খেলে ‘ট্রাইগ্লিসারাইড’ নামক এক ধরনের ফ্যাটি অ্যাসিডে রূপান্তরিত হয় যার ফলে হৃদরোগ ও স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়।এই জন্য রাতের খাবার তাড়াতাড়ি সেরে নেওয়ায় আমাদের শরীরের পক্ষে ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.