মদ খেলেই অফিস ছুটি। কোন দেশে রয়েছে এই নিয়ম?

নিউজ ডেস্ক – সপ্তাহের ছ’দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করার পর একটি মাত্র উইকেন্ডে অর্থাৎ রবিবারের দিন অনেকেই নিজেদের বন্ধুদের সঙ্গে ড্রিঙ্ক করা বা ছোটখাটো কোনো লংড্রাইভে ঘুরতে যাওয়া পছন্দ করেন। কিন্তু সারা রাত বন্ধুর সঙ্গে পার্টি করে বা দূরে কোথাও ঘুরতে গেলে সকলের মাথায় একটি চিন্তা থাকে যে সকাল হলেই ছুটতে হবে অফিসে। শুনতে হবে বসের একগাদা ঝাড় তার পাশাপাশি তো রয়েছেই উঁচু পাহাড়ের সমান ফাইলের বোঝা। তাই ইচ্ছা থাকলেও কেউ হতে পারেন না হ্যাঙ্গওভার বা ভুলবশত মদ্যপান করে হ্যাংওভার হয়ে পড়লেও ঝিমুনি ভাব নিয়ে উপস্থিত হতে হয় অফিসে। কিন্তু এবার এই হ্যাংওভারই  দেবে সকোলকে ছুটি। শুনতে তাজ্জব লাগলো বর্তমানে এটি বাস্তব ঘটনা। 

সারারাত বন্ধুদের সঙ্গে পার্টি করার পর হ্যাংওভার হয়ে পড়লেও অফিসে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না কোন কর্মচারীদের, এমন এক নতুন নিয়ম চালু করেছে জার্মানির সরকার। সেই দেশে হ্যাংওভারকে এক গুরুতর অসুখ বলেই মান্যতা  দেওয়া হয়। যার কারণে সেখানে কোনো ব্যক্তি বা মহিলা মদ্যপান করে হ্যাংওভার হয়ে পড়লে একটা ফোন কল বা মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দিলেই পেয়ে যান গোটা একদিনের ছুটি। তবে এর পেছনে রয়েছে একটি ছোটখাটো গল্প। 

জানা যায় জার্মানির মিউনিখে একটি বার্ষিক লোক উৎসবে সকলের প্রচুর পরিমাণে বিয়ার খাওয়ার প্রচলন রয়েছে। আর তারপরেই এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে ওই আদালত। তাই কেউ যদি হ্যাংওভার হওয়ার পরেও অফিসে যেতে না চান তাহলে অবশ্যই জার্মানিতে এসে বাস করাতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.