ঠোঁট ফাটা নিরাময় করতে সাহায্য করে। ভেসলিনের অসাধারন ৬ টি উপকারিতা

আমাদের সকলের এক অত্যন্ত পরিচিত উপাদান ভ্যাসলিন। শুষ্ক ঠোঁট ও ত্বকের যত্ন নিতে ভ্যাসলিনের জুড়ি মেলা ভার। ত্বকের ময়েশ্চার ফিরিয়ে আনা, ঠোঁট ফাটা জাতীয় সমস্যার সমাধানে ভেসলিন ই আমাদের প্রথম ভরসা। তবে শুধু এটুকুই নয়‌।রূপচর্চায় ভ্যাসলিনের কিন্তু রয়েছে আরও বিভিন্ন ব্যবহার।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ভ্যাসলিনের ব্যবহার গুলি 

1)ত্বক থেকে ব্ল্যাক হেডস দূর করা এক কঠিন কাজ। নিয়মিত স্ক্রাব ব্যবহার করার পরেও অনেক সময় ব্ল্যাকহেডসের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না।এক্ষেত্রে ভেসলিন ব্যবহার করে দেখতে পারেন।কিছুটা ভ্যাসলিনের সাথে অল্প পরিমাণ দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে ব্ল্যাক হেডস এর ওপর পাঁচ মিনিট ভালো করে ম্যাসাজ করুন ।এরপর মিনিট 10 অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন জল দিয়ে দেখবেন ব্ল্যাকহেডস আগের থেকে অনেকটা দূর হয়ে গেছে ।

2)সুগন্ধি ব্যবহার করতে কার না ভালো লাগে!বিশেষত গরমকালে ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে সুগন্ধির ব্যবহার তো মাস্ট। তবে অনেক নামিদামি সুগন্ধীও অনেক সময় ত্বকে বেশিক্ষণ টেকে না।এক্ষেত্রে সুগন্ধির গন্ধ স্থায়ী করতে ব্যবহার করুন ভ্যাসলিন।ত্বকের যে অংশে সুগন্ধি এপ্লাই করবেন সেখানে প্রথমে অল্প একটু ভ্যাসলিন লাগিয়ে নিন তার ওপরে লাগান সুগন্ধি দেখবেন তা থাকবে অনেকক্ষণ।

3)ভ্যাসলিন ঠোঁট ফাটা নিরাময় করে ত্বককে রাখে নরম। তবে শুধু তাই নয় ঠোঁটের মেকআপ ওঠানোতেও সাহায্য করে ভ্যাসলিন ।ঠোঁটে লিপস্টিক এপ্লাই করার পরে অনেক সময় আমরা মেকআপ তোলার জন্য বারবার ঠোঁট সাবান দিয়ে বা টিস্যু দিয়ে ঘষতে থাকি। এতে ঠোঁটের  আদ্রতা হারিয়ে যায় এবং ঠোঁট হয়ে ওঠে শুষ্ক।এক্ষেত্রে লিপস্টিক ওঠানোর জন্য ঠোঁটে ভ্যাসলিন লাগিয়ে রাখুন 10 মিনিট তারপর টিস্যু দিয়ে হালকা করে মুছে ফেলুন। দেখবেন লিপস্টিক  উঠে গেছে পুরোপুরি ভাবে ‌‌‌ ।

4)দীর্ঘ চোখের পাপড়ি আমাদের চোখকে করে তোলে আকর্ষণীয় ও মোহময় ।তবে প্রাকৃতিক ভাবে দীর্ঘ চোখের পাপড়ি না থাকলেও নেই কোন অসুবিধা।নিয়মিত চোখের পাতায় ভ্যাসলিন ব্যবহার করে দেখুন চোখের পাপড়ি হয়ে উঠবে দীর্ঘ। এমনকি চোখে মাশকারা ব্যবহারের আগেও চোখের পাতায় এপ্লাই করতে পারেন ভ্যাসলিন। এতে আপনার মেকআপে আসবে এক সুন্দর লুক ।

5)ঠোঁটে নিয়মিত লিপবাম অ্যাপ্লাই করা সত্ত্বেও মরা চামড়া দেখা যায় অনেক সময়। আর এই মরা চামড়া দূর করতে এবং নরম ঠোঁট পেতে ব্যবহার করুন ভ্যাসলিন ।সপ্তাহে তিনবার টুথব্রাশে কিছুটা ভ্যাসলিন লাগিয়ে ধীরে ধীরে ঠোটে ঘষতে থাকুন পাঁচ মিনিট ধরে। এরপর ভাল করে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ঠোঁট ।দেখবেন বেবি সফ্ট লিপস পেয়ে গেছেন সাথে সাথে ।।

6)গোড়ালি ফাটা মূলত শীতকালের সমস্যা হলেও অনেকেরই বারো মাসই ফাটা গোড়ালি দেখা যায়।আর গোড়ালি ফাটলে যেমন দেখতে লাগে বাজে তেমনই বেদনাদায়ক ও হয় এটি ।এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে খুব ভালো কাজ দেয় ভ্যাসলিন ।একটি বড় পাত্রে পা রেখে কিছুটা শ্যাম্পু গরম জলে মিশিয়ে পিউমিক স্টোন দিয়ে ভালো করে ঘষে নিন গোড়ালি ।এরপর ভালো করে ভ্যাসলিন দিয়ে গোটা গোড়ালিতে ম্যাসাজ করে নিন কিছুক্ষণ ।পরপর কয়েক দিন এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে গোড়ালি ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন পুরোপুরি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.