জাপানের দ্বীপেই ভেসে এসেছিল মানুষের কাটা মাথা ও দেহের কঙ্কাল। উত্তর কোরিয়াই ছিল এই সবের পেছনে?

নিউজ ডেস্কঃ মানুষ স্বভাবতই কৌতুহলী ।যেকোনো অদ্ভুতুড়ে রহস্যজনক জিনিস আমাদের ভারী পছন্দের। তবে, কৌতূহলী মন থাকা সত্ত্বেও চারপাশে ঘটা সমস্ত অদ্ভুতুড়ে ঘটনার খোঁজ আমরা পাই না ।কিন্তু  মাঝে মাঝে পৃথিবীর বুকে ঘটে এমনই কিছু হাড়হীম করা রহস্যজনক ঘটনা ঘটে যা সকল বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে ।

সম্প্রতি এরকমই এক ঘটনর সাক্ষী হয়েছে জাপান। জাপানের এক দ্বীপের উপকূলে হঠাৎ ই ভেসে আসতে দেখা গেছে এক ভূতুড়ে জাহাজ কে । ভুতুড়ে জাহাজ কথাটি শুনে অবাক হলেন নিশ্চয়ই ?জানলে আতঙ্কিত  হবেন যে কাঠের তৈরি এই জাহাজে পাওয়া গেছে বেশ কয়েকটি মানুষের কাটা মাথা ও দেহের কঙ্কাল। আর তা দেখে ভয় পেয়েই জাহাজ এর এই নামকরণ।

কোথা থেকে এলো এই জাহাজ ?মৃতদেহগুলিই বা কার ?প্রশ্ন অনেক কিন্তু উত্তর মেলেনি একটারও। স্বভাবতই তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে সমগ্র জাপান জুড়ে ।জাপানের সংবাদ সংস্থা গুলি থেকে জানা যায় যে এই জাহাজে পাওয়া গেছে অন্তত পাঁচটি মানুষের কঙ্কাল ও দুটি কাটা মাথা। ।জাপানের উপকূলরক্ষীরা এই জাহাজ খুঁজে পেয়েছে ঠিকই তবে জাহাজে জীবিত থাকা কাউকেই খুঁজে পাননি তারা ।এমনকি জাহাজে পাওয়া মাথা গুলি ওখানে থাকা ওই পাঁচটি দেহেরই নাকি অন্য কারোর তা নিয়েও শুরু হয়েছে নানা জল্পনা ।

ভুতুড়ে এই জাহাজের কাছে এই মূহুর্তে কাউকেই ঘেষতে দেওয়া না হলেও এ জাহাজ নিয়ে সমগ্র বিশ্বে শুরু হয়েছে জোর চর্চা ।অনেকেই মনে করছেন দেহ এবং কাটা মুন্ডু গুলি রেখে সমুদ্রে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে এই জাহাজ কে । জাহাজটা এল কোন দিক থেকে তা নিয়ে সঠিক কোনো উত্তর পাওয়া না গেলেও কোরিয়ান অক্ষর ও নাম্বার লেখা এই জাহাজ টি উত্তর কোরিয়া থেকেই এসেছে বলে উপকূলরক্ষীরা মনে করছেন ।কারন উত্তর কোরিয়া থেকে জাপানের দূরত্ব তেমন বেশি না সাগরপথে মাত্র 500 মাইল ।

বেশ কিছু থিওরি থাকা সত্ত্বেও,মৃতদেহের সঠিক পরিচয় জানা না যাওয়ায় এখনো উদ্বেগের রেস কমেনি জাপানের মানুষদের মধ্যে ।ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। তবে জাপান ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্ক তেমন ভালো না হওয়ায় এ নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.