হার্টের সমস্যা কমায়। পেয়ারার অসাধারন ৮ টি কাজ

এ এন নিউজ ডেস্কঃ বারুইপুরের পেয়ারা বেশ খ্যাতি। এমনও কিছু মানুষ আছেন যারা পেয়েরা খাওয়ার জন্য বারুইপুর থেকে গিয়ে নিয়ে আসেন। আর এই ফল এমনই যে প্রচুর মানুষ ভালোবাসেন এই ফল। তবে অনেকেরই জানা নেই এর স্বাস্থ্য গুন।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করেঃ এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে। যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে শরীরকে সুস্থ করতে সাহায্য করে। যেকোনো ইনফেকশান থেকে পেয়ারা শরীরকে সুস্থ রাখে।

ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়ঃ পেয়ারাতে লাইকোপেন, কোয়ারকেটিন, ভিটামিন সি ও পলিফেনল আছে, যা শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসাবে কাজ করে। আর এই অক্সিডেন্ট ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমায়।বিশেষ করে প্রোস্টেট ক্যান্সার কমাতে অনেক সাহায্য করে পেয়ারা। ব্রেস্ট ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়ঃ পেয়ারাতে ফাইবার ও কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স থাকার কারনে এটি খেলে রক্তে শর্করার  পরিমান নিয়ন্ত্রনে থাকে। এ কারনে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি কিছুটা হলেও কমে যায়।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখেঃ পেয়ারা শরীরের সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের ব্যালেন্স বাড়ায়। যা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

হার্টের সমস্যা কমায়ঃ পেয়ারা ট্রাইগ্লিসারাইড ও এলডিএল নামক খারাপ কলেস্ট্রেরলের মাত্রা কমায়। যার ফলে হার্টের অনেক সমস্যা কমে যায়। পেয়ারা এইচডিএল নামক কলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায় যা হার্টকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করেঃ পেয়ারা একটি ফাইবার জাতীয় ফল। এটি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়ঃ পেয়ারার ভিটামিন সি এবং আয়রন কফ দূরীকরণে অনেক বড়ো ভূমিকা পালন করে।কারোর যদি কফ জমে যায় গলায় তাহলে পেয়ারা খুব ভালো ওষুধ।

পেয়ারা পাতা ইনফেকশান দূর করেঃ পেয়ারা পাতায় আছে ইনফ্লেমেটরি গুন এবং খুব শক্তিশালী অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ক্ষমতা। যা ইনফেকশানের সাথে যুদ্ধ করে এবং জীবাণু ধ্বংস করে। পেয়ারা পাতা দাঁত ব্যাথার জন্য খুব ভালো একটি ওষুধ।

ওজন কমাতে সাহায্য করেঃ পেয়ারাতে গ্লুকোজের পরিমান কম থাকে। এই কারনে এটি ওজন কমাতে বেশ ভালো প্রতিষেধক হিসাবে কাজ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.