নিজের স্বামির দেহ ১১ বছর ধরে ফ্রিজে লুকিয়ে রেখেছিলেন ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা। কিন্তু কেন?

নিউজ ডেস্ক – বহু ধরনের বিকৃত জিনিস দেখা যায় এই পৃথিবীতে। কিন্তু এমন কিছু কিছু জিনিস রয়েছে যা সাধারণ মানুষের পক্ষে কল্পনাতীত। কারণ কিছু মাস এক বৃদ্ধার বাড়ি থেকে ৬৯ বছর বয়সী তার স্বামীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। 

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয়দের ভাষ্যমতে টুয়েলো শহরে ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা জিন স্যুরন-ম্যাথার্স বসবাস করতেন। দীর্ঘ কয়েক বছর আগে থেকে আর খুঁজে পাওয়া যেত না তার স্বামী পল এডোয়ার্ড ম্যাথার্সরকে। যদিও সেই বিষয়ে কোনো রকম সন্দেহ প্রকাশ করেনি স্থানীয়রা। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন যাবৎ বৃদ্ধাকে এলাকায় দেখতে না পাওয়ায় তার বাড়িতে হানা দেয় এলাকাবাসী।

পরবর্তীতে দীর্ঘক্ষন ডাকাডাকি করেও বৃদ্ধা কোন সাড়া শব্দ না পাওয়ায় প্রশাসনের দ্বারস্থ হন তারা। এরপরে সমাজ কল্যাণমূলক কর্মীরা বৃদ্ধার বাড়িতে গিয়েই দরজা ভেঙে দেখতে পান মৃত অবস্থায় বিছানার উপর পরে রয়েছে  বৃদ্ধা। যদিও এই মৃত্যুর ঘটনাটি বয়স জনিত কারণে ঘটেছে। এরপরে বৃদ্ধার মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার সময় এক বিরল ঘটনার সাক্ষী হয় গোটা এলাকাবাসী সহ প্রশাসন। তারা দেখতে পান ওই অ্যাপার্টমেন্টের ফ্রিজের মধ্যে অক্ষত অথচ মৃত  অবস্থায় রয়েছে বৃদ্ধার স্বামীর দেহ। যদিও এই মৃত্যুর ঘটনার পেছনে বৃদ্ধার কোনরকম জড়িত রয়েছেন কিনা সেই সম্পর্কে অবগত নয় পুলিশ। প্রশাসনিক অধিকর্তাদের অনুমান মৃতদেহটি বয়স আনুমানিক ১১ বছর। যদিও ঠিক কি কারণে মৃত্যু হয়েছে এবং মৃতদেহ যত্ন করে রাখার পেছনে কারণ কি তা উন্মোচনে হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.