পুড়ে যাওয়া জিহ্বা ঘরে বসেই ঠিক করুন বরফ এবং মধু দিয়ে

নিজস্ব সংবাদাতা:   জিহ্বা পুড়ে যাওয়ার মত অস্বস্তি বোধয় অন্য কিছুতে নেই।গরম খাবার খাওয়ার সময় অনেকেরই অসতর্কতাবশত জিহ্বা পুড়ে যায়। পুড়ে যাওয়া জিহ্বা জ্বালা করার সাথে সাথে জিহ্বার স্বাদ গ্রহণের ক্ষমতাও চলে যায় যতক্ষণ না তা ঠিক হচ্ছে। এই সময় কিছু খাওয়াও যায় না। জিহ্বায় ব্যথা, খড়খড়ে ভাবও হয়। সুতরাং গরম জাতীয় খাবার খাওয়ার আগে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। আর যদি তা সত্ত্বেও জিহ্বা পুড়ে যায়, তবে এর জন্য রয়েছে কিছু ঘরোয়া টিপস।

পুড়ে যাওয়া জিহ্বা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সারানোর চেষ্টা করতে হবে, দেরী করলে চলবে না। 

জিহ্বা পুড়ে যাওয়ার কারণে অনেক সময় মুখে শুকনো ভাব, জলশূন্যতা, মুখে দুর্গন্ধ বা দাঁত ক্ষয়ের মত গুরুতর সমস্যাও দেখা দিতে পারে। 

আসুন জেনে নিই জিহ্বা জ্বালাপোড়ায় থেকে স্বস্তি পেতে ঘরোয়া পদ্ধতি-

বরফ

জিহ্বা পুড়ে গেলে আপনি জ্বালাপোড়া কমাতে বরফের টুকরো লাগাতে পারেন।এ ছাড়া মুখের মধ্যে ঠাণ্ডা জল দিয়ে কয়েকবার কুলিকুচি করা যেতে পারে। এর ফলে জ্বালাপোড়া কমবে এবং আপনি মুখে আরাম বোধ করবেন।

মধু

মধুতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও প্রদাহরোধী উপাদান, যা জ্বালাপোড়া ভাব ও প্রদাহ কমানোয় দক্ষ। এর সাথে সাথে এটি পরবর্তী সময়ে মুখে ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিও প্রতিহত করবে।

দই

পুড়ে যাওয়া জিহ্বার জ্বালাপোড়া কমাতে দই ও  বেশ উপকারী। এ সময় ঠাণ্ডা জিনিস খাওয়া টা জরুরী।দই দ্রুত শীতলতা প্রদান করে।

অ্যালোভেরা

আমরা সকলেই জানি অ্যালোভেরার গুন অনেক। পোড়া জিভ ঠিক করতে ও ব্যথা কমাতে অ্যালোভেরার জুরিমেলা ভার। এটি জিহ্বার ভেতরে একটি ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা ভাব আনবে যা আপনাকে আরাম দেবে। অ্যালোভেরা জেল মুখের মধ্যে ২৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। দিনে বেশ কয়েকবার এটি করতে পারেন।

তবে এতেও যদি ব্যথা না কমে তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.