ঢেঁড়স রান্না করার সময় দুচামচ লেবুর রস দিলে পিচ্ছিল হয়ে থাকে না। অবাক করা কিছু টিপস

নিউজ ডেস্কঃ রান্না ঘরে একেক সময় একাধিক অসুবিধার সম্মুখিন হতে হয়। বিশেষ করে একাধিক পোকামাকড় থেকে শুরু করে আনাজ খারাপ হওয়ার কারনে। তবে বিশেষ কিছু নিয়ম জানা থাকলে আর সেভাবে অসুবিধা হয়না।

ফুলকপি রান্নার আগে টুকরো করে নুন জলে ডুবিয়ে নিন। পোকামাকড় থাকলে বেড়িয়ে যাবে।

বাঁধাকপি সেদ্ধ করলে বিশ্রী গন্ধ বের হয়।যে জল বাঁধাকপি সেদ্ধ করবেন আধখান পাউরুটি একটি সিল্কের কাপড়ে বেঁধে রাখুন।আর গন্ধ হবে না।

কচু কাটার আগে হাতে সর্ষের তেল মেখে নিলে হাত চুলকাবে না।

ঢেঁড়স রান্না করার সময় দুচামচ লেবুর রস দিলে পিচ্ছিল হয়ে থাকে না।

কোন কোন ঢেঁড়সের গায়ে কাটা কাটা ভাব থাকে।চটে ঘষে নিয়ে কাটুন।কাঁটা ভাব চলে যাবে।

বেগুন কেটে জলে ফেলে দিলে তরকারির রঙ কালো হয় না।কয়েকদিন রাখার ফলে বেগুন একটু তেতো হয়।বেগুন কেটে টুকরোগুলো নুন জলে ডুবিয়ে নিন এবং সিদ্ধ হওয়ার সময় নুন হলুদের সঙ্গে একটু গুড় বা চিনি দিলে তেতো ভাব আর থাকবে না।

আনারস টক হলে ফেলে দেবেন না।টুকরো টুকরো করে কেটে চিনি ছড়িয়ে এবার প্রেসার কুকারে সেদ্ধ করুন।সেদ্ধ হলে পাইনেপেল এসেন্স মিশিয়ে ফ্রিজে রাখুন।যখন জুস বা ডেজার্ট বানাবেন তখনই ব্যবহার করতে পারেন।

আনারসের চোখ ছুরি দিয়ে ভালো করে তোলা না হলে জিভ চুলকায়।তখন জিভে সামান্য নুন ঘষে নিলে রেহাই পাওয়া যায়।

পুদিনার পাতার মিষ্টি চাটনি তৈরি করুন মধু দিয়ে।স্বাদে আসবে নতুন মাত্রা।

গুড়-আম করার আগে আমের টুকরোগুলো জলে ভিজিয়ে রাখুন ফিটকিরি দিয়ে।এক রাত্রি এভাবেই রেখে দিয়ে পরের দিন আচার করলে আমের টুকরোগুলো গলে না।

মাশরুম বিষাক্ত কিনা তা পরিক্ষা করার একটা উপায় হল জলে দু-চার কোয়া রসুন  দিয়ে মাশরুম ফুটতে দিন।বিষাক্ত হলে জল কালো হয়ে যাবে।

শাক ধোয়ার জলে দু-চার ফোটা ভিনিগার মেশান।সহজে পোকা দূর হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.