কিডনিকে সুস্থ রাখতে সহায়ক। নিমপাতার অসাধারন ৫ টি কাজ

নিউজ ডেস্কঃ নিমপাতা স্বাস্থ্য থেকে শুরু করে ত্বক, চুল ইত্যাদি ভালো রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।এই একটি পাতায় রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ক্ষমতা যা একসাথে  অনেক সমস্যা দূর করতে সহায়ক।তাই এই পাতাটিকে তিতা বলে দূরে ঠেলে দেবেন না কারন এই পাতাটি তিতা হলেও এটি স্বাস্থ্যের জন্য অতি মিঠা।তাই স্বাস্থ্য থেকে শুরু করে  ত্বক, চুলকে ভালো রাখতে নিমপাতাকে কাছে টেনে নিন।এবং তার সাথে জেনে নিন এর কিছু উপকারিতা সম্পর্কে। 

১.বর্তমান দিনে  ত্বকের সমস্যা যেন বেড়েই চলেছে। যা থেকে মুক্তি পাওয়া একটি অসাধ্য হয়ে উঠেছে।আর এই অসাধ্যকে সাধ্য করতে পারে এই একটিমাত্র পাতা।নিম পাতাতে থাকা বিভিন্ন ধরনের উপাদান যা ত্বকের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা যেমন- ত্বকের শুষ্কতা ,  ব্ল্যাকহেডস, বড় ছিদ্র , ত্বকের দাগ, ব্রন ইত্যাদি  দূর করতে সহায়ক।ত্বকে ছাড়াও  চুলের জন্যও উপকারি নিমপাতা।কারন নিমপাতাতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফ্যাংগাল উপাদান যা চুলের সমস্যা যেমন- খুশকি, চুল পড়া ইত্যাদি প্রতিরোধ করতেও সহায়ক।

২. নিমপাতা লিভার ও কিডনিকে সুস্থ রাখতে সহায়ক।কারন এই পাতার মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদান যা শরীর থেকে ক্ষতিকর টক্সিন বের করতে রক্ত পরিশুদ্ধ রাখতে সাহায্য করে।যার ফলে লিভার ও কিডনি সুস্থ থাকে।তাই নিজেদের কিডনি এবং লিভারকে ভালো রাখতে প্রতিদিন ২ টা করে নিমের তৈরি ক্যাপসুল খান। 

৩. যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের পক্ষে নিমপাতা খাওয়া খুবই উপকারি।কারন নিমপাতা রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ রাখতে সাহায্য করে।এছাড়াও নিমপাতা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতেও সহায়ক।তাই নিয়মিত নিমের তৈরির ক্যাপসুল খান এতে ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গুসহ অন্যান্য সংক্রমণ রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করবে আপনাদেরকে।

৪. নিম দাঁতের বিভিন্ন ধরনে সমস্যা থেকে মুক্তি দিতেও সহায়তা করতে পারে।কারন এই পাতাতে   অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদানটি থাকে।

৫. নিমের মধ্যে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরী উপাদানটি  পাকস্থলীর নানা সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।বিশেষ করে হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.