হাড়ের স্বাস্থ্য রক্ষার্থে সাহায্য করে। আলুর অসাধারন ১১ টি কাজ

আলু বাঙ্গালীদের প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি অংশ বলাই চলে। এটি যেমনি সুস্বাদু ঠিক তেমনি সস্তা এবং সহজলভ্য ।মাছ, মাংস ডিম, সবজি কোন কিছুর সাথেই আলু বাদ যায় না ।বলাই বাহুল্য বাঙালির রান্না ঘরে আর কিছু থাকুক না থাকুক আলু থাকবেই ।আলু বেশি খেলে ডায়াবেটিস সহ নানা রকম নেতিবাচক প্রভাব শরীরের দেখা যায় ঠিকই তবে নির্দিষ্ট পরিমাণ আলু নিয়মিত খেলে তা বরং শরীরের উপকার ই করে ‌।কারণ,আলুতে আছে প্রচুর পরিমাণে মিনারেল, ভিটামিন ও কার্বোহাইড্রেট যা শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ।আসুন বিস্তারিত ভাবে জেনে নিই স্বাস্থ্যের জন্য আলুর উপকারিতা গুলি কি কি।

হার্টের জন্য

হার্ট ভালো রাখতে কলেস্টরেল নিয়ন্ত্রণ করা খুবই দরকারি।আর এই কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করার জন্য প্রয়োজনীয় ফাইবার,পটাসিয়াম ,ভিটামিন সি এবং ভিটামিনবি ৬ প্রচুর পরিমাণে রয়েছে আলুতে। যার ফলে শরীরের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য আলুর জুড়ি মেলা ভার ।রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্যে বিশেষজ্ঞরা আমাদের কম সোডিয়ামযুক্ত খাদ্য গ্রহণ করতে বলেন ।আর সেইসঙ্গে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য পরামর্শ দেওয়া হয় বেশি পরিমাণে পটাশিয়াম যুক্ত সবজি খাওয়ার। আর  আলুতে এই দুটি জিনিসই সঠিক পরিমাণে আছে ফলে  রক্তচাপ সহজেই নিয়ন্ত্রণে থাকে।

ক্যান্সার থেকে মুক্তি

ক্যানসার রুখতে আলুর ভূমিকা অসামান্য ।আলুতে রয়েছে ফোলেট যা ডি.এন.এ. তৈরী ও মেরামত করতে সাহায্য করে। এর ফলে ক্যান্সারের জন্য দায়ী কোশগুলি নষ্ট হয়ে যায় । এছাড়া আলুতে থাকা ফাইবার কোলন ক্যান্সার রোধ করতে সাহায্য করে।

হাড়ের স্বাস্থ্য

বয়সের সাথে সাথে মানুষের হাড়ের স্বাস্থ্য ক্রমে খারাপ হতে থাকে। তবে, নিয়মিত অল্প পরিমাণে আলু খেলে হাড়ের স্বাস্থ্য কিন্তু ভালো থাকে ।আলুতে থাকে আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও জিঙ্ক, যা  হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্যে উপযুক্ত। ফলে আলু শরীরের গঠন মজবুত করতে সাহায্য করে।

হজম ক্ষমতা

ফাইবার শরীরের হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং পাচনতন্ত্র কে সঠিকভাবে চালাতে সাহায্য করে এ কথা আমরা অনেকেই জানি ।কিন্তু জানেন কি আলু খাওয়া কিন্তু আপনার শরীরে ফাইবারের পরিমাণ বাড়ায় ফলে হজম সহজে হয় ।এছাড়াও ডায়রিয়া বা পেট খারাপের সমস্যা দেখা গেলে আলু সেদ্ধ করে খেলে মেলে উপকার

কিডনি স্টোন থেকে মুক্তি

 নিয়মিত আলু খেলে তা শরীরের হজম ক্ষমতা বাড়ায় ও পাচনতন্ত্র রাখে সুস্থ। ফলে, শরীরে জলের পরিমাণও সঠিক থাকে। এর ফলে কিডনিতে স্টোন হওয়ার সমস্যা রোধ করা যায়।

দাঁতের সমস্যা

হজম সংক্রান্ত সমস্যায় যেমন আলু অনেকটা সাহায্য করে তেমনি যেকোনো দাঁতের সমস্যাতেও কিন্তু আলু বেশ উপকারী । দাঁত বা মাড়ির সুস্থতার জন্য   ভিটামিন সি বেশ দরকারি । আর আলুতে এই ভিটামিন-সি প্রচুর পরিমাণে থাকে। তাই দাঁতের সমস্যায় এক টুকরো আলু দিয়ে রোজ দাঁত পরিষ্কার করলে সমস্যা থেকে আরাম মেলে ।

মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য

মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্যে কার্বোহাইড্রেট, পটাসিয়াম ও গ্লুকোজ এই প্রত্যেকটি সঠিক পরিমাণে খুব জরুরি। আর নিয়মিত আলু খাওয়ার সুবিধা হলো যে এই প্রত্যেকটি উপাদান একই সাথে উপস্থিত আলুর মধ্যে যা মস্তিষ্ককে স্বাস্থ্যকর রাখতে সাহায্য করে ।

 রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

বিভিন্ন রকমের আলু, বিশেষত মিষ্টি আলু ভিটামিন এ ও এন্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর। তাই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চাইলে নিয়মিত মিষ্টি আলু খেতে পারেন ।

ওজন নিয়ন্ত্রণ করা

ওজন নিয়ন্ত্রণ করার জন্য অনেকেই ডায়েট থেকে আলু পুরোপুরিভাবে বাদ দিয়ে দেন।তবে এটা কিন্তু ঠিক নয় ।সঠিকভাবে ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে চাইলে প্রত্যেক দিনের ডায়েটে অল্প পরিমাণে আলু যোগ করা উচিত কারণ এতে ফ্যাটের পরিমাণ তুলনামূলকভাবে কম থাকে অথচ পেট ও সহজে ভরে যায়  ।

ঘুমের সমস্যার সমাধান

আপনার যদি ঘুম না আসার সমস্যা থেকে থাকে তাহলে প্রতিদিন অল্প পরিমাণে আলু ডায়েটে যোগ করতে পারেন কারণ গবেষণায় দেখা গেছে শরীরে সঠিক পরিমাণে পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম আপনার শরীরকে ভারসাম্য ও আরাম প্রদান করে যার ফলে আপনার স্নায়ু শান্ত হয় ও আপনি নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারেন। আর এই সমস্ত কিছুই একই সাথে আলুতে উপস্থিত।

তবে বাকি যেকোনো জিনিসের মতোই আলু ও মাত্রা ছাড়া খাওয়া উচিত নয়। তা না হলে এর থেকেও দেখা দিতে পারে নানা শারীরিক সমস্যা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.