সাপ দিয়ে বিয়ার তৈরি করা হয় পৃথিবীর কোন দেশে?

নিউজ ডেস্ক: কুকুর কিংবা বিড়ালের মাংস খাওয়া স্বাভাবিক এবং প্রায় প্রতিটি মানুষই নাস্তিক। আবার দেহ ব্যবসার মতো কাজ করা হয়।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় অবস্থিত খুব সুন্দর একটি দেশ ভিয়েতনাম। এখানে প্রায় সকল মানুষই নাস্তিক। এখানে বেশিরভাগ লোকজন বাইক ব্যবহার করে থাকে বেশি কেউ চারচাকার গাড়ি অতটা ব্যবহার করে না আর এখানের মানুষেরা ডানদিক দিয়ে গাড়ি চালিয়ে থাকে।

সব জায়গায় নিউ ইয়ার ফার্স্ট জানুয়ারি করা হয়ে থাকে ভিয়েতনামে ঠিক  উল্টোটা হয়‌ তারা ফার্স্ট ফেব্রুয়ারি নিউ ইয়ার পালন করে থাকে। ভিয়েতনামে এমন একটি গ্রাম আছে যেটি মাটির ওপর নয় জলের ওপর তৈরি সেই গ্রামটির নাম ফ্লোটিং ফ্লিসিং ভিলেজ। সেখানে স্কুল থেকে শুরু করে সবকিছু জলের উপর তৈরি হয়েছে।

এখানে ছাগল কিংবা মুরগির মাংস খাওয়া হয়না এখানে কুকুর এবং বিড়ালের মাংস তারা খেয়ে থাকে এই নোংরা স্বভাবের কারণে প্রায় কুড়ি লক্ষের ও বেশি কুকুর-বিড়ালের হত্যা করে  থাকে। রবোস্তা কফি  ডিমের কুসুম দিয়ে তৈরি হয় ট্রাডিশনাল কফি ভিয়েতনামে খুব বিখ্যাত।

সাপ দিয়ে তৈরি হয় এখানে অদ্ভুত বিয়ারের প্রচলন রয়েছে। প্রথমে সাপকে ধরে ভিনিগার এর মধ্যে ডুবিয়ে রাখা হয়, ওই সাপের বিষ শেষ হয়ে গেলে সাপটিকে বের করে রাইস ওয়াইনে ছেড়ে দেওয়া হয় চার থেকে ছয় সপ্তাহ পর ভালো ভাবে পান করা যায়।

ভিয়েতনামের মানুষেরা মনে করে স্নেক বিয়ার তাদের শরীরকে ভালো রাখতে এবং বহুদিন পর্যন্ত আয়ু বাঁচাতে সাহায্য করে।

সস্তা খুব ভালোভাবে মেয়েদের উপলব্ধির কারণেই আজ ভিয়েতনাম দেহ ব্যবসার ক্ষেত্র পরিণত হয়েছে।

মেয়েরা ৫০-৫৫ লোকদের সাথে সম্পর্ক করে থাকে তাই এখানকার দেহব্যবসায় মহিলারা খুব প্রফেশনাল হয়ে থাকে। 

খাবারের থেকেও মেয়েদের দাম সস্তা হয় এখানে। ভিয়েতনামে  গ্রাম অঞ্চলে থাকা মেয়েরা পেটের দায়ে নিজের পরিবারকে বাঁচানোর জন্য এই দেহ ব্যবসার কাজ তারা করে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.