ঘরের ভেতর শিস দিলে শুরু হতে পারে দুর্ভাগ্য। কোন দেশে রয়েছে এই নিয়ম?

নিউজ ডেস্কঃ পৃথিবীতে এমন ও দেশ আছে যেখানে ঘরের ভেতরে শিস দিলে নাকি দুর্ভাগ্যের লক্ষণ দেখা যায়। 

লিথুয়ানিয়া দেশটি ইউরোপের বাল্টিক সাগর এর পূর্বে অবস্থিত। লিথুনিয়ারা তাদের ভাষা লিথুয়ানিয়ান ভাষাকে খুবই শ্রদ্ধা এবং মর্যাদা করে থাকেন। তাদের ভাষা লিথুয়ানিয়ান পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন কথ্য ভাষা। এটি সংস্কৃত ভাষার থেকেও পুরনো ভাষা।তাই এদের ভাষাকে  অন্যদেশের ব্যক্তি বুঝতে পারে না।

এছাড়া আমরা বর্তমান দিনে চলার কথা ভাবতে পারিনা ইন্টারনেট এছাড়া। অনেক জায়গায় ইন্টারনেটের ভালো পরিষেবা পাওয়া যায় না, কিন্তু লিথুনিয়ায় ইন্টারনেটে যেমন ভালো পরিষেবা পাওয়া যায় তেমনি খুব সস্তায় ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়।

লিথুনিয়াদের জাতীয় খাবার হলো সিপেনীনাই। এটি এমন খাদ্য যেটি কোন দেশেই পাওয়া যায় না। এখানে লোকাল বিয়ার সবাই খেয়ে থাকে। মদ্যপান করতে যারা পছন্দ করেন তাদের কাছেই লিথুনিয়া আকর্ষণীয় স্থান। পৃথিবীর সবচেয়ে গুণমান আম্বার এখানে পাওয়া যায় বাল্টিক সাগরের গভীর জলের নিচে পাওয়া যায় যা রং ও সৌন্দর্যের জন্য বিখ্যাত এই আম্বার লিথুনিয়ারা গর্ব করেন।

এখানে একরকমের আতর পাওয়া যায় যে আতর এর জন্য  সেন্ট প্রটিক্স ডে পালন করা হয় এইজন্য  লিথুনিয়ার নদীতে পানার সবুজ রঙে রাঙানো হয়ে থাকে।

লিথুনিয়া বাসীরা মনে করেন ঘরের ভেতরে শিস দিলে নাকি দুর্ভাগ্যের লক্ষণ দেখা যায়, এই জন্য অশুভ অশরীরীর আগমন নাকি ঘটে থাকে। লিথুনিয়ানদের  সৌভাগ্যের প্রতীক হলো কালো রুটি এবং লবণ। যদি কেউ এখানে কেও বিয়ে করতে চান তাহলে টেবিলের কোণে ভুলেও বসবেন না কারণ লিথুনিয়ানরা বিশ্বাস করেন টেবিলের কোন ব্যক্তিটি বিবাহের অযোগ্য  এই নিয়ম শুধুমাত্র মহিলাদের জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.