শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়ার পেছনে কেন খাওয়ার-সোডাকে দায়ী করা হয়?

নিউজ ডেস্কঃ সোডা। আজকাল প্রচুর মানুষ খাওয়ারে সোডা রাখার চেষ্টা করেন। বিশেষ করে ডায়েট ঠিক রাখতে আজকাল অনেকেই এই সোডা খেয়ে থাকেন। বিশেষ করে নিজেদের ডায়েট রেজিম ঠিক রাখতে কোলা জাতীয় পানীয় পছন্দ করেন না৷ আর সেই কারনে তারা বেছে নেন ডায়েট সোডা৷ কিন্তু আদৌ তাতে কি কোনও লাভ হচ্ছে? সেইদিকে কেউ খেয়াল রাখার চেষ্টা করছেন না৷ যারা ডায়েট সোডা নিয়মিত খান তারা নিজের অজান্তেই নিজেদের শরীরে ক্যালোরি বাড়িয়ে ফেলছেন৷ অনেকের মতে তো ডায়েট সোডা ক্যালেরি-ফ্রি৷ কিন্তু গবেষণাতে অন্য কিছু বেড়িয়ে আসছে।

ব্লুমবার্গ স্কুল অফ পাবলিক হেলথের এক গবেষক জনস্ হপ্কিনস্ একটি গবেষণা তে লক্ষ্য করেছেন যে যারা চিনিজাতীয় পানীয় পান করেন তাদের থেকে যারা ডায়েট সোডা পান করেন তাদের বেশিরভাগ মানুষেরই অতিরিক্ত ওজন এবং তারা ওবেসিটির শিকার হয়েছেন৷ ব্লুমবার্গ স্কুলের অপর একজন গবেষক জানিয়েছেন একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ শুধু ডায়েট সোডা খেয়ে যে পরিমাণ ক্যালোরি অর্জন করে থাকেন সেই একই পরিমাণ ক্যালোরি একজন মানুষ চিনিজাত পানীয়ের সঙ্গে একাধিক স্ন্যাক্সজাতীয় খাওয়ার খেয়ে অর্জন করেন৷ ন্যাশনাল হেলথ অ্যান্ড নিউট্রিশন এক্সজামিনেশন সার্ভে প্রধানত একটি জলসংখ্যা মুলক সার্ভেতে আমেরিকার প্রাপ্তবয়স্কদের স্বাস্হ্য এবং পুষ্টির উপর বিশেষভাবে নজর রাখা হয়৷ ১৯৯৯-২০০০ সাল থেকে এই সার্ভেতে ঠিক এরকমই তথ্য সামনে এসেছে৷

এই জাতীয় পানীয় যারা খেয়ে থাকেন তারা যদি নিজেদের ওজন কমাতে চাইলে এই ধরণের পানীয় খুব শীঘ্রই ত্যাগ করা উচিৎ৷ ডায়েটের মধ্যে শক্ত খাওয়ার রাখার পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে জল খাওয়া অভ্যাস করতে হবে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.