রূপচর্চার ক্ষেত্রে বিরাট কাজ করে। ছানার অসাধারন ৫ টি উপকারিতা

দুধ বা ছানা যার গুনাবলি বা শরীরে ক্ষেত্রে এর উপকারিতা অপরিসীম।দুধ বা ছানার উপকারিতা সম্পর্কে আমরা প্রায় সবাই জানি।যেমন ছানাতের রয়েছে ক্যালশিয়াম ও ভিটামিন ডি থাকে যা ব্রেস্ট ক্যানসারের সম্ভাবনা কমায়। ক্যালশিয়াম ও ভিটামিন ডি-এর ফলেই এতে হাড়ও শক্ত থাকে।এছাড়াও রয়েছে ফসফরাস যা  খাবার হজম করতে সাহায্য করে। কিন্তু ছানা উপাকারিতা সবাই জানলেও ছানার জলের উপকারিতা সম্পর্কে অনেকেরই অজানা।আর তাই ছানা জল ফেলে দেওয়া হয়।তাই এবার জেনে নিন ছানার জলে উপকারিতা সম্পর্কে।যা শরীরে জন্য খুবই উপকারি।

ছানার জলে রয়েছে অ্যালবুমিন ও গ্লোবিউলিন নামে দু‌টি প্রোটিন ।এবং রয়েছে কার্বহাইড্রেট ও ল্যাকটোজ।এছাড়াও এতে উপস্থিত রিবোফ্ল্যাভিন নামে একটি ভিটামিন যা শারীরিক বৃদ্ধিতে সাহায্য করে এবং শরীরে শক্তির যোগান দেয়।

ছানার জলে রয়েছে নানান ধরনের উপাদান যা আমাদের শরীরকে নানা ধরনের সমস্যা থেকে রক্ষা করে যেমন- হরমোনাল ইমব্যালান্স, কিডনির সমস্যা, হার্টের সমস্যা, লো প্রেশার ইত্যাদি।এছাড়াও পেশি শক্ত করতে ও শরীরে রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে ছানার জল।

ছানার জল রূপচর্চার ক্ষেত্রেও খুবই উপকারী। তাই ছানার জল ব্যবহার করলে আমাদের ত্বকের নানা সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে যেমন ছানার জল দিয়ে নিয়মিত মুখ ধুলে ত্বক সতেজ থাকে। গরমে মুখের অতিরিক্ত তেল থেকে মুক্তি পেতে হলে বেসন অথবা আটার সঙ্গে ছানার জল মিশিয়ে মুখে মাখতে পারেন।এছাড়াও গরমে ট্যানের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে ছানার জলের  কার্যকারিতা অপরিসীম।তাই রোদ থেকে এসে  আলুর ও শশার রসের সঙ্গে ছানার জল মিশিয়ে নিয়মিত মুখে লাগান।এতে কালো ছোপ দূর হবে।

এছাড়াও ছানার জল চুলে যত্নের জন্যও  ব্যবহার করতে পারেন।কারন ছানার জল  চুল ও স্ক্যাল্প সতেজ রাখতে সাহায্য করে।তাই শ্যাম্পু করার পরে ছানার জল দিয়ে স্ক্যাল্প ও চুল ধুয়ে নিন। এর পরে ১০ মিনিট রেখে হালকা গরম জলে চুল ধুয়ে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.