হজমের সমস্যা। অজান্তে আপেল খাওয়ার ফলে যে ধরনের বিপদ হতে পারে

লাল টকটকে মোলায়েম আপেল যা নজর কাড়ে সবার।দেখেই খেতে ইচ্ছে করে তাইনা?কিন্তু এই লোভনীয় রঙের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে বিপদ।এই রঙের মধ্যেই রয়েছে ক্ষতিকর রাসায়নিক যা মানব শরীরে ডেকে আনতে পারে ভয়ানক রোগ। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, দীর্ঘদিন যদি এই ধরণের রাসায়নিক  পদার্থ শরীরে প্রবেশ করে তবে তা অন্ত্রে ভীষণ ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। এমনকি হতে পারে কোলন ক্যান্সারও।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ অরিন্দম বিশ্বাস বলেছেন, আপেলের গায়ে প্রাকৃতিকভাবেই মোম জাতীয় এক ধরনের পদার্থ সৃষ্টি হয় যা ক্ষনস্থায়ী।তবে ব্যবসায়ীরা নিজেদের স্বার্থে সেই আস্তরণ বজায় রাখতে  কৃত্রিম মোম মাখিয়ে রাখছেন।যাতে আর্দ্রতা বজায় থাকে এবং আপেল বেশিদিন চকচকে এবং তাজা থাকে। সাধারণত সেল্যাক, কারনৌবা, পোট্রোলিয়াম জেলি জাতীয় জিনিস ব্যবসায়ীরা ব্যবহার  করেন।

এগুলি শরীরে প্রবেশ করলে আমাদের শরীরের হজম প্রক্রিয়া নষ্ট হয়ে যায়। পেট খারাপ, ডায়েরিয়ার মত সমস্যাও দেখা যায়।বৃহদান্ত্র এবং ক্ষুদ্রান্ত্রের ওপর যে আস্তরণ থাকে তাতেও মারাত্মক প্রভাব পড়ে। দীর্ঘদিন তা শরীরে ঢুকলে কোলন ক্যান্সার হওয়ারও আশঙ্কা থাকে।

গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজিস্ট ডাঃ বিপিএন কৌশিক জানান, মোম বা প্যারাফিন পালিশ করা ফলগুলি খেলে( যেমন আপেল, পেয়ারা) পাতলা পায়খানা, বমি, পেটে ব্যথার মত শারীরিক গোলযোগ দেখা যায়।উপরন্তু অন্ত্রে এই আস্তরণ জমে যায় তখন খাবার খেলে ক্ষুদ্রান্ত্র শোষণ করতে পারে না যার ফলে হজমের বড়সড় গোলযোগ দেখা দেয়।

কি কি ক্ষতি:

➲ কোলন ক্যান্সারের মতো ঝুঁকি

➲ পাকস্থলীর ক্ষতি

➲ হজমের সমস্যা

➲ অন্ত্রে মোম জমে ক্ষতি

➲ লিভারের বড় অসুখের শঙ্কা

➲ প্যারাফিন জমলে মলদ্বারে সমস্যা

➲ ক্ষুদ্রান্ত্রে, বৃহদন্ত্রে প্যারাফিন জমে বিষক্রিয়া

➲ পেটে অ্যালার্জি, ডায়েরিয়া

➲ শ্বাসকষ্ট

➲ ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর

তবে চিকিৎসকদের পরামর্শ, খোসা ছাড়িয়ে খেলে এসব ঝুঁকি থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে নিশ্চিন্তে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.