ভারতবর্ষের কোন কোন মন্দিরে আজও মহিলাদের প্রবেশ নিষেধ?

ঈশ্বরের আশীর্বাদ পাওয়ায় আশায় সকল মানুষ ঈশ্বরের দর্শন বিভিন্ন ধার্মিক জায়গায় যায়।বলা হয়ে থাকে যে ভগবানের কাছে তার সকল ভক্তরা সমান।কিন্তু তাও কিছু কিছু মন্দির আছে যেখানে  মহিলাদের প্রবেশ নিষিদ্ধ  কিন্তু পুরুষদের  প্রবেশিধিকার আছে।তবে কেন ভগবানের দর্শনে এইধরনের ভেদাভেদ নারী ও পুরুষদের মধ্যে।এবং কোন কোন মন্দিরে এই রকম নিয়ম আছে জেনে নিন।  

১. লর্ড আয়াপ্পার মন্দির,শবরীমালা :

এই মন্দিরে দেবতা আয়াপ্পার পূজা করা হয়।বলা হয় যে দেবতা আয়াপ্পার  ধ্যান যাতে ভঙ্গ না হয় তার জন্যই মহিলাদের ঢুকতে দেওয়া হয় না এই মন্দিরের ভিতরে। কিন্তু এই মন্দিরে যে কোনো নারীদেরই প্রবেশিধিকা নিষিদ্ধ ঠিক তা নয় এই মন্দিরে শুধুমাত্র  ঋতুবতী মহিলারা অর্থাৎ ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সের মহিলাদেরই শুধুমাত্র ঢুকতে দেওয়া হয় না।

 ২. লর্ড কার্তিকেয়ার মন্দির, পেওয়া হরিয়ানাঃ
পাঞ্জাব-হরিয়ানা বর্ডারে অবস্থিত এই মন্দিরটিতে ভগবান কার্তিকের পূজা করা হয়।  কার্তিক যেহেতু অবিবাহিত তার জন্য ঢুকতে দেওয়া হয় না মহিলাদের।মনে করা যে  এই মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকার পিছনের রয়েছে একটি পৌরাণিক কাহিনী।বলা হয় যে এই মন্দিরে কার্তিক একদিন ধ্যানে বসেছিলেন।আর তখন কার্তিকের ধ্যান ভঙ্গ করার জন্যে ব্রহ্মা একজন অপসরাকে পাঠিয়েছিলেন। ভবান কার্তিক এতে রেগে গিয়ে তাকে পাথর বানিয়ে দিয়েছিল। সেই থেকেই কার্তিক বলেছিলেন এই মন্দিরে কোনও মহিলা ঢুকলে তাকে পাথর বানিয়ে দেবেন তিনি।আর এই থেকেই মহিলাদের এই মন্দিরের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

৩. মাওয়ালী মাতার মন্দির, ছত্তিসগড়
ছত্তিশগড়ের এই মন্দিরটিতেও মহিলাদের প্রবেশে নিষিদ্ধ।বলা হয় যে ভগবানের নির্দেশ অনুসারে এই মন্দিরের দুজন পুরোহিত শ্যামলাল সাধু এবং শিব ঠাকুর মহিলাদের ঢোকার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন।তবে এই মন্দিরের ভিতরে একটি বিশেষ জায়গা আছে যেখানে  মহিলারা প্রবেশ করতে পারে।  

৪. শ্রীকৃষ্ণের মন্দির, কেরালাঃ
কেরালার এই মন্দিরটিতেমেয়েদের ঢুকতে দেওয়া হলেও নালাম্বালাম নামে মন্দিরের একদম ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয় না মেয়েদের।বলা হয় যে  বহু যুগ আগে দুজন সন্ন্যাসী ৬ মাসের জন্য এই মন্দিরে এসে বাস করেছিলন। তাঁরা যেহেতু অবিবাহিত ছিলেন তাই ওই মন্দিরে তখন মেয়েদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়েছিল।আর এর থেকে এই মন্দিরে এই  নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল।

৫. জনৈ মন্দির, রনকপুর
রাজস্থানে  অবস্থিত এই মন্দিরটি ভারতের জনৈ মন্দির গুলোর মধ্যে একটি খুবই জনপ্রিয় মন্দির।এই মন্দিরটি ১৫র দশকে তৈরি করা হয়েছিল।এই মন্দিরটিতে  মহিলাদের ঋতুচক্র চলার সময় প্রবেশ নিষিদ্ধ । এছাড়া এই মন্দিরের প্রবেশের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম হল যে  এই মন্দিরে ঢুকতে গেলে হাঁটুর নিচ পর্যন্ত পুরো পা ঢাকা থাকলে তবেই ঢোকার অনুমতি দেওয়ায় হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.