পৃথিবীর কোন দেশে জেলে থাকলে মানুষকে নিজেদের মল মুত্র খেতে হয় জানেন?

নিউজ ডেস্ক – অপরাধ করে কারাগারে যাওয়া আসামীদের যাবজ্জীবন দণ্ড দেওয়া বা ফাঁসি দেওয়া এটা কমন ব্যাপার। তবে পৃথিবীতে এমন একটি জেল রয়েছে যেখানে আসামীদের তাদের নিজেদের মল খেতে বাধ্য করা হয়। এমন এক নরকীয় কারাগার হলো ফিলিপাইন্সের ক্যাটোবাটো কারাগার। এই দেশে আসামীদের এমন নরকীয় শাস্তি দেওয়া হয় বলে কোন অপরাধ করতে দশবার ভাবে সেখানকার বাসিন্দারা। 

পরিসংখ্যান করে দেখা গেছে অন্যান্য দেশের তুলনায় ফিলিপিন্সের অপরাধীর সংখ্যা অধিক। যার কারণে কারাগারে অপরাধীরা সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়ার দরুন বানানো হয়নি। কারণ এখানকার নিয়ম অনুযায়ী খোলা জায়গায় শৌচ করে এসে নোংরা পরিস্কার করার দায়িত্ব কয়েদিদের। তবে মাঝে মাঝে কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিকরা কঠোর শাস্তি দেওয়ার জন্য তাদের নিজেদের মল খেয়ে পরিষ্কার  করতে পারে। কিন্তু এখানেই ক্ষান্ত হন না তারা। ততক্ষণ পর্যন্ত এটি কয়েদিকে নোংরা খাওয়ানো হয় যতক্ষণ না সে বমি করছে। ফিলিপিন্সের ক্যাটাবাটো জেলখানার এমন নৃশংস তা দেখে চমকে উঠেছেন সাধারণ মানুষ সহ অন্যান্য দেশের গভারমেন্টও। 

যদিও এই নরকীয় কাজের ঘোর বিরোধিতা করে  আওয়াজ তুলেছিলেন ইউনাইটেড নেশন এর মানবাধিকার সংস্থা। তবুও তার পরও কোনো ভ্রুক্ষেপ দেয়নি ফিলিপাইন্সের সরকার। আজও মানবাধিকারের সব সীমা লংঘন করে নিজেদের নরক কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখেছেন সেখানকার গভর্মেন্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.