মধ্যযুগে স্বামীদেরকে নিজেদের কাছে রাখতে কেন খাবারে বিষ প্রয়োগ করতো স্ত্রীরা?

স্বামীদের কাছে রাখতে কত কলা কৌশলই না  প্রয়োগ করে থাকে স্ত্রীরা। তবে মধ্যযুগের স্ত্রীদের কৌশল দেখলে চোখ কপালে উঠবে সাধারণ মানুষের। কারণ সেই সময়কার যুগে স্বামীদের নিজের কাছাকাছি রাখতে তাদের খাবারে বিষ প্রয়োগ করে থাকতো স্ত্রীরা। যদিও এই পদ্ধতি বেশি দেখা যেত ফ্রান্সে। 

জানা গিয়েছে,শহরের সকল বিবাহিত মহিলারা তাদের স্বামীর প্রাতঃরাশে সামান্য পরিমানে বিষের ডোজ দিয়ে রাখতো। আর স্বামী সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে আসলে সঙ্গে সঙ্গে সেই বিষের প্রতিষেধক দেওয়া হতো। এরফলে স্বামীর শরীরের কোনো ক্ষতি হতো না। তবে পুরুষ তার স্ত্রীর কাছে অর্থাৎ বাড়ি ফিরতে যত দেরি করবে, সে তত বেশি অসুস্থ হয়ে পরবে। এবং, অবশেষে যখন তিনি বাড়িতে ফিরে আসেন, তার স্ত্রী অজান্তেই তাকে সেই বিষের প্রতিষেধক দিতেন। এইভাবেই কয়েক মিনিটের মধ্যে, তিনি দ্রুত ভাল বোধ করতে শুরু করেন। 

এই কৌশলের মাধ্যমে পুরুষদের মনে ধারণা তৈরি হতো যে বাড়ি থেকে দূরে থাকলে তা তাদের মন ও শরীরকে ব্যথা এবং বিষণ্নতার দিকে পরিচালিত করবে।এর ফলে স্বামীরা তাদের ঘর ও স্ত্রীর খুব কাছাকাছি থাকতো। এবং তাদের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হতো না। এই অদ্ভুত ও অস্বাভাবিক কাজটি করার কারণ ছিলো, যেনো তারা নিজ গৃহ ছাড়া কোথাও যেনো না থাকে, নিজের স্বামীকে কাছে রাখার জন্য মহিলারা এই কাজ করতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.