এশিয়ার বৃহত্তম নদী পাকিস্তানেই! কি নাম জানেন?

নিউজ ডেস্ক –  গোটা পৃথিবীতে রয়েছে তিন ভাগ জল ও এক ভাগ স্থল। এই তিন ভাগ জল দিয়ে তৈরি হওয়া একাধিক নদী  ও সাগর রয়েছে পৃথিবী একাধিক জায়গায়।  যেমন পশ্চিমবঙ্গে রয়েছে গঙ্গা ঠিক সেই রকমই অন্যান্য দেশে অন্যান্য নাম নিয়ে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করে রেখেছে নদীগুলি।

গঙ্গা নদীর দৈর্ঘ্য ২,৫২৫ কিলোমিটার। কিন্তু, এই নদীর দৈর্ঘ্য গঙ্গার থেকেও বেশি, ৩১৮০ কিলোমিটার বা ১৯৭০ মাইল। আর এই নদীর নাম সিন্ধু। তিব্বতের মানস সরোবরের কাছ থেকে উৎপন্ন হয়ে ভারতের লাদাখের মধ্যে দিয়ে সিন্ধুনদ প্রবেশ করেছে পাকিস্তানের গিলগিট-বালুচিস্তানে। সেখান দিয়ে তা পঞ্জাব হয়ে করাচি বন্দরের কাছে আরব সাগরে গিয়ে মিশেছে। সিন্ধুনদের মোট প্রবাহিত এলাকা গঙ্গার থেকে বেশি। ৪৫০,০০০ বর্গমাইল এলাকার মধ্যে প্রবাহিত হয়েছে সিন্ধুনদ এবং তার শাখা ও উপশাখা নদীগুলি। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে বড় নদীগুলির মধ্যে অন্যতম এই সিন্ধুনদ। ভারতীয় উপমহাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় নদী হলেও, সিন্ধুনদ কিন্তু, ভারতের নদী নয়। কারণ, এর ৯৩ শতাংশ প্রবাহিত হয়েছে পাকিস্তানে। ৫ শতাংশ ভারতে ও ২ শতাংশ চিনের মধ্যে প্রবাহিত হয়েছে। একাধিক দেশে একাধিক নামে পরিচিত। যেমন পশ্চিমবঙ্গে রয়েছে গঙ্গা, ঠিক তেমনই অন্যান্য রাজ্যেও রয়েছে একাধিক নামের নদী বা সমুদ্র। কিন্তু পৃথিবীর সবচেয়ে বৃহত্তর নদীর খোঁজ পাওয়া গিয়েছে পাকিস্তানে। 

ভৌগোলিকদের মতানুসারে গঙ্গা নদীর দৈর্ঘ্য ২,৫২৫ কিলোমিটার। সম্প্রতি একটি গণনার মাধ্যমে জানা গিয়েছে অধিকাংশ মানুষ মনে করেন বৃহত্তর নদী হচ্ছে গঙ্গা। কিন্তু সেই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। কারন যে নদীটি পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বৃহত্তের স্থান দখল করে নিয়েছে তার নাম হল সিন্ধু নদী। যেটি মূলত সিন্ধু সভ্যতার প্রাক্কাল থেকে পরিচিত। এই নদীটির দৈর্ঘ্য গঙ্গার থেকেও বেশি প্রায় ৩১৮০ কিলোমিটার বা ১৯৭০ মাইল। সিন্ধু নদীটি তিব্বতের মানস সরোবরের কাছ থেকে উৎপন্ন হয়ে ভারতের লাদাখের মধ্যে দিয়ে হিন্দু নদে প্রবেশ করেছে পাকিস্তানের গিলগিট-বালুচিস্তানে। 

তবে বালুচিস্তানে গিয়ে থেমে থাকেনি নদীর প্রবাহ। সেটি পরবর্তীতে পাঞ্জাব হয়ে করাচি বন্দরের কাছ থেকে আরব সাগরে গিয়ে মিশেছে। সিন্ধু নদীর প্রবাহিত এলাকা গঙ্গার থেকেও বেশি প্রায় ৪৫০,০০০ বর্গমূল বিস্তীর্ণ এলাকার মধ্যে প্রবাহিত হয়েছে। 

ম্যাপ দেখলে জানা যায় ভারতীয় উপমহাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় নদী হলো সিন্ধু নদ। যার শাখা-প্রশাখা কয়েক হাজার পেরিয়েছে। তবে কথাটি ভারতীয় উপমহাদেশের মধ্যে বৃহত্তর নদী হলেও এটি ভারতের মধ্যে অবস্থিত নয়। কারণ সিন্ধু নদীর মাত্র ৫ শতাংশ রয়েছে ভারতে নইলে আর বাকি ৯৩ শতাংশ পাকিস্তান এবং ২ শতাংশ চীনের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। যার কারণে সিন্ধু নদীটিকে পাকিস্তানের মধ্যে অবস্থিত বলেই গণ্য করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.