৮০০ এর বেশী ভাষার কথা বলতে সক্ষম যে দেশের মানুষ

নিউজ ডেস্কঃ পৃথিবীতে এমন দেশের নাম শুনেছেন যেখানে 800 এর বেশি ভাষায় কথা বলা হয়।  পাপুয়া নিউগিনি ওশেনিয়া মহাদেশের মেলানেশিয়া তে অবস্থিত। এটি প্রশান্ত মহাসাগরের একটি দ্বীপ রাষ্ট্র। এই দেশের রাজধানী তথা বৃহত্তম শহর হল পোর্ট মোরসবি। এই দেশটির মোট আয়তন 4,62,840 বর্গ কিলোমিটার। এবং দুই হাজার কুড়ি সালের জনগণনা অনুযায়ী এই দেশের জনসংখ্যা আনুমানিক 8, 35,000 জন।

পাপুয়া নিউগিনির দেশ সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য হল

1. পাপুয়া নিউগিনি হলো এমন একটি দেশ যেখানে 800 ও বেশি ভাষায় কথা বলে থাকে।

2. এই দেশে মাত্র 13 শতাংশ লোক শহরে বাস করে এবং এই দেশে এমন কিছু দ্বীপ রয়েছে যেখানে বসবাস করা মানুষ দের তাদের নিজেদের দেশে অবস্থিত অন্য দ্বীপ সম্পর্কে কোন ধারণা নেই।

3. এই দেশের পাওয়া পুরাতন জিনিস থেকে ধারণা করা হয় এই দেশে 60 হাজার বছরের আগে থেকেই মানুষের অস্তিত্ব ছিল।

4. এই দেশে প্রায় 600 অধিক দ্বীপ রয়েছে। এখানকার মানুষেরা এই সকল দ্বীপ সম্পর্কে এখনও অনেকেই অজানা। তাই তাদের সংস্কৃতি ও সম্পূর্ণ ভিন্ন। যার জন্য এই দেশে নানা সংস্কৃতির মিশ্রণ লক্ষ্য করা যায়।

5. একবিংশ শতাব্দীতে এসেও পাপুয়া নিউগিনি দেশের মহিলাদের কোন সম্মান ও অধিকার দেওয়া হয় না। ইদ্রিসের মহিলারা সভ্যতা থেকে এখনো অনেক পিছিয়ে আছে। এখনো তাদের ওপর নানা রকম অত্যাচার করা হয়।

6. পাপুয়া নিউগিনি পুরো বিশ্বের মধ্যে মহিলাদের জন্য একটি আনসেইফ কান্ট্রি। এই দেশটি এতটাও ভয়ানক যে রাস্তার মাঝে ও মহিলাদের পিটতে দেখা যায়। কিন্তু পুলিশ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে না।

7. একটি অদ্ভুত বিষয় হলো এদেশের মেয়েদের পুরুষ দ্বারা অত্যাচার করা হলেও এখানকার সম্পত্তির অধিকার মেয়েদের কাছেই থাকে। আমাদের এখানে যেমন একজন পিতার কাছে সম্পত্তির অধিকার থাকে কিন্তু পাপুয়া নিউগিনিতে সেই অধিকার মায়ের থাকে।

8 এখানে একটি বিয়ের পর মেয়ে ছেলের বাড়িতে না গিয়ে  ছেলে মেয়ের বাড়িতে থাকতে আসে।

9.  এই দেশে এখনো  40 শতাংশ মানুষের কাছে শিক্ষার আলো পৌছাতে পারেনি।

10. 1975 সালের 16 সেপ্টেম্বর এই দেশ অস্ট্রেলিয়া থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে। এই দেশের উন্নতির জন্য বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া নানা প্রকার আর্থিক সাহায্য করছে।

11. এই দেশটির যোগাযোগ ব্যবস্থা ও সুরক্ষা কোন অস্তিত্ব নেই বললেই চলে। এই দেশের কোন ব্যক্তিকে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে নানা প্রতিবন্ধকতার শিকার হতে হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.