হাড়কে মজবুত রাখতে সাহায্য করে। গরম গরম নরম রসগোল্লা খেলে যে উপকার গুলি পাবেন

নিউজ ডেস্কঃ বাঙালি আর মিষ্টি পছন্দ করে না এমনটা ভাবায় যায় না।অনুষ্ঠান হোক বা খুশির খবর সবেতেই সঙ্গে চাই একটু মিষ্টি।এই মিষ্টির মধ্যে রসগোল্লা হল এমন একটি মিষ্টি যা নবীন থেকে প্রবীণ সবাই খেতে খুব পছন্দ করে।কিন্তু খেতে ভালোবাসলেও স্বাস্থ্যের জন্য অনেকেই দূরে ঠেলে দেয়।কারন মনে করা হয় যে রসগোল্লা খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক।এবার থেকে এই ধারনাটিকে দূরে সরিয়ে দিয়ে রসগোল্লা খান।কারন  রসগোল্লা খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারি।এটি আমাদের শরীরকে অনেক সমস্যা থেকে মুক্ত রাখতে সাহায্য করে।তাই নিশ্চিন্তে রসগোল্লা খেতে পারেন।তবে হয় অতিরিক্ত কোন কিছু স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো নয়।তাই পরিমান মতো রসগোল্লা খান আর এর স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলি পান।  

১. রসগোল্লা গাঁট ও বাতের ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।কারন রসগোল্লা যেহেতু ছানা দিয়ে বানানো হয় এই ছানার মধ্যেই ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড ও ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড উপাদান থাকে  ।যা গাঁট ও বাতের ব্যথা সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সহায়ক উপাদান। 

২। রসগোল্লায় উপস্থিত ভিটামিন-কে ,ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদি উপাদান যা হাড়কে মজবুত রাখতে সাহায্য করে।

৩.  রসগোল্লাতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ডায়েটারি ফাইবার থাকে  যা হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।এর ফলে দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৪. রসগোল্লার মধ্যে থাকা বিভিন্ন ধরনের উপাদান যা  ইউরিনারি সিস্টেমের কর্মক্ষমতাকে উন্নত করতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।তাই যদি করোর প্রস্রাবের সময় জ্বলন হয় তাহলে  তাঁরা রসগোল্লা খেতে পারেন।এছাড়াও রসগোল্লা  কিডনিতে পাথর হওয়াকে প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।  

৫.  গরম রসগোল্লা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতেও সহায়ক।তাই শরীরকে রোগ মুক্ত রাখতে হলে পরিমান মতো গরম রসগোল্লা খান।এতে ভালো উপকার পাবেন।এছাড়াও  আমাশার সমস্যা দূর করতেও সহায়তা করে গরম রসগোল্লা।তাই আমাশার  ১-২ টো রসগোল্লা খান। এতে ভালো উপকার পাবেন।  

তবে যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা আছে তাদের পক্ষে রসগোল্লা খাওয়া উচিৎ নয়।আর যদি খান তাহলে অবশ্য ডায়েটিশিয়ানের থেকে পরামর্শ নিয়ে খাবেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.