পৃথিবীর বৃহত্তম ফুল কোন দেশে হয়?

নিউজ ডেস্ক – ফুল এমনই একটি প্রকৃতি সৃষ্ট উপাদান যা কমবেশি প্রায় সকলেই পছন্দ করে থাকেন। এমনকি ফুল ছাড়া কোন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়া প্রায় অসম্ভব। বিয়ে হোক কিংবা পুজো আবার কোন কোন ক্ষেত্রে উৎসবের মরসুমে ঘর সাজাতে ব্যবহৃত করা হয় ফুলের। নানা রকমের ফুলের সমারোহে আজ শুন্য হয়ে উঠেছে গোটা পৃথিবী। বর্ণ গন্ধ আকৃতির নিরিখে একটি ফুলকে একই স্থানে রাখা হয়েছে। তবে এমন একটি ফুল রয়েছে যা পৃথিবীর মধ্যে বৃহত্তম বলে পরিচিত হলেও অপছন্দ করে বহু মানুষ। কারণ যারা এই ফুল দর্শন করেছেন এবং তার ঘ্রাণ নিয়েছে তারাই একমাত্র জানে এই ফুলের গন্ধ আর পাঁচটি ফুলের মতো সুন্দর নয়। এই ফুল থেকে বেজায় পঁচা মাংসের গন্ধ নির্গত হয়। তবে এটা শুধু মানুষের বক্তব্য ইনান বিজ্ঞানীরাও একই মত পোষণ করেন।  

পৃথিবী বিখ্যাত অথচ দুর্গন্ধযুক্ত ফুলটি পাওয়া যায় ইন্দোনেশিয়ায়। এই ফুলটি  ব়্যাফ্লেশিয়া প্রজাতির। পৃথিবীতে গড় ৩২টি প্রজাতির  ব়্যাফ্লেশিয়া প্রজাতির ফুল পাওয়া যায়। যার মধ্যে ২৮টি ভেরিফাইড এবং ৪টি আনভেরিফাইড। এই ভেরিফায়েড প্রজাতিগুলির মধ্যে অন্যতম হল- ব়্যাফ্লেশিয়া টুয়ান মুডায়। পরিবেশ বিজ্ঞানীদের মতে ইন্দোনেশিয়ায় যে ফুলটি ফুটেছে সেটিও এই প্রজাতির। এর ব্যাস প্রায় ৩ ফুট ৬ ইঞ্চি বা ১১১ সেন্টিমিটার ও ১০ ফুট। সব থেকে অবাক করা বিষয় হল ব়্যাফ্লেশিয়ার আয়ু মাত্র এক সপ্তাহ। আর এর পরেই নষ্ট হয়ে যায় এই ফুল। এই পোল্টির প্রথম সন্ধান পেয়েছিলেন ঊনিশ শতকে এক ব্রিটিশ উপনিবেশ অফিসার স্যার স্যামফোর্ড র‍্যাফ্লেস। প্রথম সন্ধানীর নামানুসারেই নাম দেওয়া হয়েছে এই ফুলের। তবে শুধু ইন্দোনেশিয়াতে নয় পাশাপাশি এই ফুল পাওয়া যায় দক্ষিণ এশিয়াতেও। তবে এই ফুলের দুর্গন্ধ হওয়ার বিশেষ কারণ হিসেবে জানা যায় বিভিন্ন পোকামাকড় আকৃষ্ট করতেই এই বিশেষ গুণ রয়েছে ফুলটিতে। পৃথিবীর বৃহত্তম ফুলটিকে বহু মানুষ দেখতে গেলেও তার ঘ্রাণ নিতে ইচ্ছুক নয় কেউ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.