কোন দেশে মরা তিমির পেটে প্রচুর আবর্জনা উদ্ধার ?

নিউজ ডেস্ক –  ওয়ার্ল্ড পলিউশন ডে হিসেবে বছরের একটি দিনে সকল নোংরা আবর্জনা সাফ সাফাই করার অভিযানে নামে দেশবাসী। কিন্তু সেই দিনটি পার হতেই ভুলে যায় সেই সকল গল্প। যার কারণে বর্তমানে মনুষ্যসৃষ্ট আবর্জনার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে অবলা জীব। কারণ এরা নিজেদের মুখ থেকে কোন সমস্যা বলতে না পারায় প্রতিনিয়ত বঞ্চিত হচ্ছে এক স্বচ্ছল  জীবন থেকে। বহু প্রশাসনিক হস্তক্ষেপের পরেও সামুদ্রিক প্রাণীরা আজও যে বিপর্যস্ত তারই এক জ্বলজেন্ত উদাহরণ দিলো মৃত তিমি। 

দেখা গিয়েছে বিগত কয়েক মাস আগে স্কটল্যান্ডের আইল অব হ্যারিসে ২০ টন ওজনের একটি মৃত তিমি উদ্ধার করা হয়েছিল। সেই তিমির যখন পোসমাটাম করা হয়েছে তখন তার পেট থেকে এক বিশাল আকৃতির গোলাকার আবর্জনার স্তূপের মতো বল পাওয়া গিয়েছিল। সেই নোংরা স্তুপের মধ্যে ছিল প্লাস্টিক, বোতল, দড়ি, একাধিক খাবারের প্যাকেট, গ্লাভস, মাস্ক, মাছ ধরার জালের মতো বহু নোংরা। আর এর থেকে প্রমাণিত হয় যে আজও মানুষের অব্যবহৃত জিনিসগুলি অসাবধানতা ভাবি প্রকৃতির বুকে ফেলে দেওয়ায় হারাতে বসেছে বহু নিরীহ প্রাণ। তবে শোনো মাছের ক্ষেত্রেই নয় বহু স্থলজ প্রাণী দের ক্ষেত্রেও এই সকল আবর্জনার বিক্রিয়া ঘটে তাদের অকালে প্রাণ যাওয়ার ঘটনার  সাক্ষী থেকেছে গোটা দেশ। তারপরেও সকলেই নিরুত্তর। কেউই কোনো রকম গ্রুপ কেউ করেননি এই সকল ব্যাপারে। কারণ আজও মানুষের চেয়ে জীবের কোন রকম মূল্য নেই এই পৃথিবীতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.