আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী স্কট সার্ভিসে ছিলেন। কোন কোম্পানির স্কট সার্ভিসের কার্ড ছিল তার কাছে?

নিউজ ডেস্ক  সবার জীবনের পেছনে লুকায়িত রয়েছে এক অজানা রহস্য। ঠিক সেরকমই এবার রহস্য উন্মোচন হলো আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রীর। আমেরিকার একটি স্লোভেনিয়ার ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়েছিল যে ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী অর্থাৎ মেলানিয়া ট্রাম্প যৌন কর্মী ছিলেন। এমনকি স্কট সার্ভিস দিতেও দ্বিধা বোধ করতেন না তিনি। যথারীতি ক্যামেরার সামনে নগ্ন অবস্থায় বহু এসেছেন তিনি এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। 

স্লোভেনিয়ার ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়েছিল যে, পাওলো জামপোল্লির নামের একটি স্কট সার্ভিসের কোম্পানিতে কাজ করতেন তিনি। সেখানকার সকল কর্মরত মহিলাদের দুটি করে কার্ড থাকত। একটি কার্ডে তাদের ছবি সহ উচ্চতা, গাত্রবর্ণ ও চুলের রঙ পর্যন্ত বিশ্লেষণ করা থাকত। এর মধ্যে একটি কার্ডের মাধ্যমে তারা মডেলিংয়ের ব্যবসা করত আর অপরটি মাধ্যমে দেহ ব্যবসা  অর্থাৎ স্কর্ট সার্ভিস দিত। মূলত উচ্চ ধনামশীল ব্যক্তিদের স্কর্ট সার্ভিস দিতেন তারা। 

তবে কি করে ট্রাম্পের সঙ্গে এমন একটি মহিলার পরিচয় হয় সে সম্পর্কে একটি বই প্রকাশ করা হয়েছে যার নাম 

‘ফরম দ্য হোর হাউজ টু দ্য হোয়াইট হাউজ’। তবে এই বইতে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্পের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিস্তার করা হয়েছে। তবে ট্রাম্পের অনুরাগীদের বক্তব্য ট্রাম্পের বিরুদ্ধে থাকা ব্যক্তিরা এই বই প্রকাশ করেছে। তবে বই প্রকাশ করার প্রাক্কালে ট্রাম্প অথবা তার স্ত্রীর সঙ্গে কোনো রকম কথোপকথন করা হয়নি। তাই ট্রাম্পের বিরোধীরাই ষড়যন্ত্র করে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গোটা দেশকে বিষিয়ে দিতে  এই বই প্রকাশ করেছে বলে দাবি ট্রাম্প অনুরাগীদের। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.