কেন পান খেতে নিষেধ করা হয় অন্তঃস্বত্ত্বা নারীদের?

নিউজ ডেস্কঃ পান। বাংলার ঘরে ঘরে দেখা যায় এই পাতা। বিশেষ করে আগেকার দিনে মানুষদের প্রায়শয় খেতে দেখা যেত। বর্তমানে একটু প্রচলন কমলেও জনপ্রিয়তার নিরিখে চাহিদা খুব একটা কমেনি। এর গুন যেমন রয়েছে ঠিক তেমনই ভাবে রয়েছে কিছু অপকারিতা।

পান পাতার এমন একটি পাতা যার মধ্যে আছে অনেক গুনাগুন।তবে বেশি পরিমানে খাওয়া বা জর্দা ও চুন মিশিয়ে খাওয়া শরীরের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। তাই পান খাওয়ার আগে এর ক্ষতিকারক দিকগুলি জেনে নিন।  

পান পাতা কেন্দ্রীয় স্নায়তন্ত্র বা সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেমকে ক্ষতি করতে পারে।কারন পান পাতায় রয়েছে সাইকো অ্যাকটিভ নামের একটি উপাদান।

পান পাতা খাওয়া যে রকম উপকার তবে বেশি পরিমানে খাওয়াও ঠিক ততটাই ক্ষতিকারক।কারন অতিরিক্ত পরিমানে পান খেলে মুখে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল যে পান পাতা  অন্তঃস্বত্ত্বা নারীদের পান খাওয়া উচিত নয় এছাড়াও শিশুদের বেড়ে ওঠার সময় পান পাতা খাওয়া তাদের পক্ষে বিশেষ ভাবে ক্ষতিকারক ।কারন পান উষ্ণ এবং পিত্তকারক।

প্রতিদিন পান পাতা খাওয়ার ফলে সেটি খাওয়ার নেশায় পরিণত হয় তাই হঠাৎ করে পান পাতা খাওয়া  ছাড়লে নানারকমের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। 

খাওয়ার পরে পান খাওয়া উচিত হলেও  খালি পেটে পান খাওয়া একেবারেই উচিত নয়।

শুধু পান পাতা খাওয়া উপকারি।কিন্তু পানে বেশি মাত্রায় চুন খেলে সেটি ক্ষতিকারক।কারন এই বেশি মাত্রায় চুল খাওয়ার ফলে দাঁতের ক্ষতি হয়। এছাড়াও পানের সঙ্গে জর্দা মিশিয়ে খেলেও পানের সব গুণ নষ্ট হয়ে যায়।

অতিরিক্ত পরিমানে পান খেলে নানান রকমের সমস্যা দেখা দেয়।যেমন বেশি পান খেলে মুখ ও চোখের রোগ হতে পারে।

পানের সঙ্গে বেশি খয়ের খেলে ফুসফুসে ইনফেকশন হয়।তাই পানের সাথে খয়ের খাওয়া উচিত নয়।এছাড়াও পানের সঙ্গে বেশি সুপারি খাওয়াও উচিত নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.