জলের নীচে খাঁচা বন্দী হওয়ার পর কোন দেশে কুমির দেখতে পাওয়া যায়?

নিউজ ডেস্কঃ ভ্রমনে যাওয়া কে না পছন্দ করে? অনেকের কাছে ভ্রমন করাটা একটা নেশার মতো। ভ্রমন প্রিয় মানুষ যে জায়গায় ভ্রমন করতে যায় সেই জায়গাটা যদি আবার ভয়ানক ও রোমাঞ্চকর হয় তাহলে তো আরও কোনো কথায় নেই।অনেক পর্যাটনকেন্দ্র এতটাই ভয়ানক যে প্রান হারানোর আশঙ্খা থেকে যায়।তবুও এইসবের কোনো তোয়াক্কা না করেই চলে যায় সেইসব জায়গায়।এইরকমই কয়েকটি ভয়ংকর পর্যাটনকেন্দ্র হল  

১)Lava Ocean: মানুষের সৃষ্ট কার্যকলাপের থেকে প্রকৃতির সৃষ্ট কার্যকলাপ মানুষের কাছে বেশি আকর্ষণীয়।প্রকৃতির দ্বারা আমরা অনেক কিছু ঘটনা দেখতে পায় তার মধ্যে একটি হল লাভা বের হওয়া।এই লাভা বের হওয়ার যে একটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আছে তা মানুষেকে খুবই আকর্ষণ করে বিশেষ করে যারা ঘুরতে পছন্দ করে।এই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যটি দেখার উপযুক্ত জায়গা হিসাবে মনে করা হয় হাওয়াই আইল্যান্ড। যেখানে ১৯৮৩ সাল থেকে একটি সক্রিয় আগ্ন্যেয়গিরি আছে যার থেকে লাভা বের হয়।এটি দেখতে মানুষকে যতটা আনন্দ প্রদান করে ঠিক ততটায় দুঃখের কারনও হয়ে দারাতে পারে এই আইল্যান্ডটি।এই আইল্যান্ডটি সম্পূর্ণ লাভা থেকে সৃষ্টি তবে এটি মনে করার কোন কারন নেই যে একটি নিরাপদ জায়গা কারন এই আগ্ন্যেয়গিরি যখন ফাটে তখন আগুনের ফুলকি এবং পাথর অনেক দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে।যার ফলে অনেক মানুষ আহত হয়।

২) Crocosaurus Cove: অস্ট্রেলিয়াতে অবস্থিত একটি পর্যাটন কেন্দ্র আছে যেটি জলের নিচে আছে।জলের নিচে অবস্থিত এই পর্যাটন কেন্দ্রটিকে আকর্ষণী করে তুলেছে  একটি কুমির যাকে আপনি খুব কাছে থেকে দেখতে পাবেন।তবে এটিকে দেখার জন্য আপনাকে একটি কাচের খাচায় বন্ধ করে জলের মধ্যে ফলা হবে।এরপর একটি ট্রেনার  কুমিরকে খাবার দিতে থাকবে যাতে এটি আপনার চারদিকে ঘুরে বেরায়।তবে এটি ভাবেন না যে এটি নিরাপদ জায়গায় কারন একবার একটি খাঁচাকে একটি কুমির খুলে ফেলেছিল।তবে ভাগ্য ভালো যে পর্যাটকের তেমন কোন ক্ষতি হয় নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.