পৃথিবীতে কোন দেশের মেয়েরা সবথেকে সুন্দর দেখতে হয় জানেন?

নিউজ ডেস্কঃ পৃথিবীর সবথেকে বড় পতাকা কোন দেশের রয়েছে জানেন? দক্ষিণ পূর্ব ইউরোপের একটি দেশে রুমেনিয়া কালা জাদুর জন্য বিখ্যাত এই দেশটির রাজধানী বুকারেশ। এখানকার জনসংখ্যা প্রায় দুই কোটির মতো এবং 84 জন লোক প্রতিটি স্কয়ার পৃথিবীতে বসবাস করে। রুমেনিয়ে একমাত্র দেশ যেখানে মানুষের থেকে জঙ্গল বেশি।

রুমেনিয়া সম্পর্কে কিছু মজাদার অজানা তথ্য

1. রুমেনিয়া একমাত্র দেশ যেখানে পৃথিবীর সব থেকে ভারী বিল্ডিং অবস্থিত।

2. এখানকার মেয়েরা পৃথিবীর সবথেকে সুন্দর দেখতে হয়ে থাকে।

3. এখানে মদ্যপানের জন্য কোন প্রকার বয়সের সীমারেখা থাকে না যে কেউ যেকোনো বয়সে মদ পান করতে পারে। এরা বেশির ভাগ সময় ওয়াইন ও বিয়ার পান করে থাকে।

4. এখানে 44 শতাংশ মানুষ গ্রামে এবং 56 শতাংশ মানুষ শহরে বসবাস করে।

5. এখানকার মানুষের অভিনয় দক্ষতা খুব ভালো বলে মনে করা হয়। এদের অভিনয় দক্ষতা এতটাই যে আপনার দিকে তাকানো দৃষ্টি ভঙ্গি দেখে মনে হতে পারে আপনি কোন ভুল করেছেন।

6. পৃথিবীর সবথেকে বেশি 4g নেটওয়ার্কের স্পিড এখানে রয়েছে। এখানকার যে কোন জঙ্গলে বাজে কোন সীমান্তে আপনি যান না কেন সেখানে 4g নেটওয়ার্ক এর সুবিধা আপনি উপভোগ করতে পারবেন।

7. এখানকার রেলওয়ে সুবিধাও অনেক উন্নত। এখানকার যে কোন গ্রাম বা বা শহর রেলের সঙ্গে সংযুক্ত। এছাড়াও পাবলিক ট্রান্সপোর্ট সুবিধা  অতুলনীয়।

8. পৃথিবীর সবথেকে বড় পতাকা রুমেনিয়ে বাসীরা 2013 সালে তৈরি করেছিল।

10. প্রতিবছর বহু সংখ্যক পর্যটক রুম নিয়ে ঘুরতে আসে আর এখানকার মানুষ ও  খুব ভ্রমণ প্রেমিক হয়ে থাকে, প্রতিবছর এখানকার মানুষেরা পুরো পরিবারের সাথে অন্য দেশে ঘুরতে যায়।

11. এখানে 16 বছর বয়স থেকেই ছেলেমেয়েরা একাই দেশ ভ্রমণে উদ্দেশ্যে যেতে পারে।।

12. এখানে পৃথিবীর সবথেকে সুন্দর রাস্তা দেখতে পাওয়া যায়। এই রাস্তা গুলো এমন ভাবে বানানোর যে যেকোন যুদ্ধাবস্থায় এটিকে রানওয়েতে পরিণত করা যাবে।

13. রুমেনিয়া দেশে পৃথিবীর  সব থেকে সুন্দর লাইব্রেরী দেখতে পাওয়া যায়। এই লাইব্রেরী 2015 তে তৈরি হয়। এবং পৃথিবীর যেকোন জনপ্রিয় বই পাওয়া যায়।

14. রুমেনিয়া দেশের পার্লামেন্ট পৃথিবীর সব থেকে ভারী ভারী বিল্ডিংটি 140 মিটার লম্বা 270 মিটার চওড়া এবং 68 মিটার উঁচু। তখনকার সময় এই বিল্ডিং বানাতে 3 বিলিয়ন ইউরো খরচ হয়েছিল।

15.  রুমেনিয়া বাসিরা ভিষন ফুল পছন্দ করে। শীতে এখানকার সব গাছ নষ্ট হয়ে গেলেও গরমকালের এখানকার পরিবেশ এর সৌন্দর্য বেড়ে যায়।

16. রুমেনিয়া একটি গ্রাম আছে যেখানে প্রতিটি ঘর মিলে একটি গোলাকৃতি ক্ষেত্র তৈরি করেছে। এছাড়াও অ্যাসল্ট মিউজিয়াম নামে একটি গ্রাম যেটি সাধারণত একটি ওপেন মিউজিয়াম যেখানে তিনশোর বেশি ঘর আছে এই সকল ঘর রোমানিয়ার প্রাচীন ঐতিহাসিক সংস্কৃতি ও সেখানকার মানুষের জীবন যাপন বর্ণনা করে।

17. রুমেনিয়া দেশের অন্যদের বাড়িতে ভাড়া থাকার প্রচলন একদমই নেই সেখানকার মানুষ নিজেদের বাড়িতেই থাকতে পছন্দ করে। এবং স্বল্প শতাংশ মানুষ যারা অন্য দেশ থেকে রুমেনিয়ায় রয়েছে তারাই শুধুমাত্র ভাড়া থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.